নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : অসহায় সাবেক প্রধান শিক্ষক ও জাতীয় পার্টির (জাপা) এক সময়ের দাপুটে নেতা ছিলেন বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রশিদ। উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক এই সভাপতি সব হারিয়ে বাস করছিলেন উপজেলার কুন্দারহাট যাত্রীছাউনিতে। সংবাদ প্রকাশের পর উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে তাকে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

সেই প্রধান শিক্ষককে দেখতে শনিবার দুপুর ১২ টায় হাসপাতালে যান নন্দীগ্রাম-কাহালু-৩৯, বগুড়া-৪ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য, কেন্দ্রীয় কৃষকদলের যুগ্ম-সম্পাদক ও বগুড়া জেলা বিএনপি’র যুগ্ন আহবায়ক আলহাজ মোঃ মোশারফ হোসেন এমপি।

সাক্ষাৎকালে প্রধান শিক্ষক সংসদ সদস্যকে চুমু খেয়ে বলেন, বাবা আমি তোমার জন্য দোয়া করি তুমি আরো অনেক বড় হও আল্লাহ তোমাকে নেক হায়াত দান করুক। পরে এমপি প্রধান শিক্ষককে গামছা, লুঙ্গি, সাবান, ব্রাশ, তৈল, জামা কাপর সহ নগদ অর্থ প্রদান করেন। এরপর এমপি হাসপাতালের সমস্ত রোগীদের সাথে সাক্ষাৎ করে তাদের খোঁজ খবর নেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তোফাজ্জল হোসেন, ডা. লিটন মাহমুদ।

আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা বিএনপির সভাপতি, আলাউদ্দিন সরকার, সাধারণ সম্পাদক, বেলায়েত হোসেন আদর, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হাকিম, ইয়াসিন আলী, পৌর বিএনপির সভাপতি আলেকজেন্ডার, সাধারণ সম্পাদক শফিউল আলম সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, এনামুল হক বাচ্চু, উপজেলা যুবদলের সিনিঃ যুগ্ম আহবায়ক আব্দুর রউফ রুবেল, যুগ্ন আহবায়ক আরিফুল ইসলাম মজনু, গোলাপ হোসেন পৌর যুবদলের আহবায়ক গোলাম রব্বানী, সিনিঃ যুগ্ন আহবায়ক মেহেদী হাসান শাহীন। উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি জুয়েল রানা, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান তারেক, সিনিঃ সহ-সভাপতি নবির শেখ, সিনিঃ যুগ্ম সম্পাদক শাহীন শেহজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান, পৌর ছাত্রদলের সভাপতি পলিন, সাধারণ সম্পাদক নূরনবী, সিনিঃ সহ-সভাপতি আসাদুল্লাহ, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সিজান আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আল আমিন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক (রঙিন), পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক রাজু আহমেদ, সদস্য সচিব সিয়ামুল হক রাব্বি সহ উপজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।