তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ, সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জের বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন শেষে ত্রাণ বিতরণ করেছেন সেনাপ্রধান, পুলিশের আইজিপি ও র‌্যাব’র মহা-পরিচালক। বৃহস্পতিবার দুপুরে সুনামগঞ্জ সদর ও তাহিরপুর উপজেলায় ওই ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

দুপুর দেড়টায় সেনাপ্রধান সুনামগঞ্জ শহরের জুবিলী স্কুল মাঠে হেলিকপ্টার করে এসে পৌছান। পরে তিনি সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের মইনপুর গ্রমে ত্রাণ বিতরণ করেন।

এ সময় তিনি বলেন, সেনা বাহিনীর প্রতিটি সদস্য সকলেই অত্যন্ত উৎসাহ উদ্দীপনা নিয়ে কাজ করছে বন্যার্ত মানুষের পাশে দাড়াঁনোর সুযোগ হয়েছে। আমরা সেই সুযোগটাকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করছি।

তিনি বলেন, আমাদের প্রমান করতে হবে আমরা আত্মত্যাগের মাধ্যমে আন্তরিকতার সাথে মানুষের সেবায় নিযোজিত আছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজেই সার্বক্ষতিন খোজ রাখছেন এবং আমাকে তথ্য দেন সেগুলোকে আমরা কাজে লাগিয়ে সেখানে লোক পাঠাই সেখানে লোকজন যায়। তবে এখনো আমরা সব জায়গাতে পৌছাতে পারিনি তবে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত আছে। আমাদের প্রথম লক্ষ্য হলো বন্যার্ত মানুষজনের জীবন বাঁচানো।

দুপুরে তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ করেন পুলিশের আইজিপি ড. বেনজির আহমদ। তিনি বলেন, এই হাওরের জেলায় লক্ষ লক্ষ মানুষ যে আকস্মিক বন্যায় ভানবাসি হয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন এইজন্য সরকার এবং জনপ্রতিনিধিরা আছেন প্রশাসনের সরকারী কর্মকর্তারা আছেন সবাই মিলে এই বন্যার্ত মানুষজনের কল্যাণে কাজ করছেন।

একই সময় সদর উপজেলার মনিপুর বেদেপল্লীতে ত্রাণ বিতরণ করেন র‌্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন। তিনি বলেছেন, আমরা সবাই মিলে এই বন্যাকে মোকাবেলা করার প্রত্যয় ব্যক্ত করি। সিলেটের র‌্যাবের কর্নেল আজাদের উপর জঙ্গীরা হামলা করেছিল তিনি নিজের জীবন দিয়ে সাধারন মানুষজনকে রক্ষা করেছিলেন। আমরাও মানুষের পাশে থেকে মানুষের জন্য কাজ করছি।