খোলাবার্তা২৪ ডেস্ক : করোনা সংক্রমণের আতঙ্ক কমেছে। সিকিমও পর্যটকদের জন্য তাদের দরজা খুলে দিয়েছে। যদিও মেনে চলতে হচ্ছে বেশ কিছু নিয়ম এবং স্বাস্থ্যবিধি। তার মধ্যেই সিকিম রাজ্য সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, আগামী বছরের প্রথম দিন থেকে সিকিমে আর প্লাস্টিকের পানির বোতল পাওয়া যাবে না এবং সে রাজ্যে এই জাতীয় পানীয়র কোনও বোতল নিয়ে ঢোকাও যাবে না।

সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী প্রেম সিংহ তামাং জানিয়ে দিয়েছেন, পরিচ্ছন্ন এবং স্বাস্থ্যসম্মত পানি দেওয়ার মতো প্রাকৃতিক পরিবেশ সিকিমের আছে। তাই বাইরে থেকে আর বোতল-বন্দি পানীয় নিয়ে আসার প্রয়োজন নেই। তাঁর কথায়, এই উদ্যোগের ফলে সকলেরই লাভ হবে। বোতলের পানির চেয়ে আরো স্বাস্থ্যকর পানি সকলে পাবেন। এর পাশাপাশি প্লাস্টিক বর্জন করায় পরিবেশেরও উপকার হবে।

এর আগেই সিকিমের বেশ কিছু জায়গায় এই জাতীয় পানির বোতল নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। এর মধ্যে রয়েছে উত্তর সিকিমের লাচেন। এ বার গোটা রাজ্যেই এই নিয়ম চালু হতে চলেছে। তবে নিয়মটি চালু করার আগে রাজ্য সরকারের তরফে পানি বণ্টনের পরিকাঠামো উন্নত করা হবে বলেও জানানো হয়েছে। রাজ্যবাসী এবং পর্যটকদের কাছে যাতে প্রাকৃতিক পানি ঠিকভাবে পৌঁছে যায়, তার ব্যবস্থাও এর মধ্যেই নেওয়া হবে।

ইতিমধ্যেই সিকিম ১০০ শতাংশ অরগ্যানিক রাজ্য হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। রাজ্যের কোনও জমিতেই চাষের জন্য রাসায়নিক সার ব্যবহার করা হয় না। নতুন এই সিদ্ধান্ত সিকিমকে আরো দূষণমুক্ত করবে বলে আশা সিকিমের রাজ্য সরকারের।