সোহরাব হোসেন, সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) : মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার বাইমাইল কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক (আইসিটি) দেওয়ান খলিলুর রহমানকে মারধরের প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে ওই উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে হেমায়েতপুর-সিংগাইর-মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে বিভিন্ন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী ও স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেনী পেশার দু’শতাধিক লোক এতে অংশ নেন। আধা ঘন্টা ব্যাপী এ মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্লোগান সম্বলিত ফেস্টুন, ব্যানার ও প্লেকার্ড প্রদর্শন করে প্রতিবাদ জানানো হয়।

এ সময় কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারুন-অর-রশিদের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-সিংগাইর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান দুলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশিদ,চর-জামালপুর মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. আব্দুল মজিদ, প্রভাষক জনতা খাতুন, জামির্ত্তা সত্য গোবিন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহফুজুল আলম,বায়রা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. বিল্লাল হোসেন, দক্ষিণ জামসা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম মোল্লা, কালিয়াকৈর খান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জুবায়ের হোসেন খান,কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহ-সভাপতি দেওয়ান জিকরুল ইসলাম, সমাজ সেবক দেওয়ান রফিকুল ইসলাম ও বাইমাইল বাজার কমিটির সভাপতি মো. সহিদুর রহমানসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারীরা জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী করেন।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সফিকুল ইসলাম মোল্যা বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত মাসুদ রানার পিতাকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়া হয়। লিখিত অভিযোগ অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে

প্রসঙ্গত, সোমবার (১০ জানুয়ারি) কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয়ে উপজেলার ৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম চলাকালীন সময়ে বিকেল ৩ টার দিকে স্থানীয় মাসুদ রানা(১৭) ও নাজমুল হোসেনসহ (১৭) অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জন মেয়েদের উত্যক্ত করলে আইসিটি শিক্ষক দেওয়ান খলিলুর রহমান বাঁধা দেন। এ সময় তারা ওই শিক্ষককে মারধর করে।