সোহরাব হোসেন, সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) : মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ঈদের দিন প্রকাশ্যে কুপিয়ে সৌরভ ওরফে রনি (২৩) হত্যা মামলার মূল আসামি শান্তকে (২০) গ্রেফতার করেছেন থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত শান্ত উপজেলার সায়েস্তা ইউনিয়নের পূর্ব সাহরাইল (মুন্সি পাড়া) গ্রামের ইদ্রিস আলীর পুত্র।

পুলিশ জানায়, বুধবার (১১ মে) দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে তথ্য প্রযুক্তি ও সোর্স ব্যবহার করে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানা এলাকার প্রত্যন্ত পল্লী থেকে হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত মূল আসামি শান্তকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে হত্যাকান্ডের পর পরই এজাহারভুক্ত আরো ২ আসামি আলিফ ও ইয়ামিমকে গ্রেফতার করেন পুলিশ। সেই সাথে তাদের কাছ থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহ্নত দুটি চাইনিজ কুড়াল, একটি ছেনদা ও দু‘টি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার মূল আসামি শান্তকে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা অব্যাহত আছে।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ওসি মো. সফিকুল ইসলাম মোল্যা বলেন, চাঞ্চল্যকর রনি হত্যার এজাহারভুক্ত আরো দুই আসামিকে পাবনা জেলা হতে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে যথাযথ আইনগত প্রতিক্রিয়ায় আদালতে প্রেরণ করা হবে।

উল্লেখ্য, ঈদের দিন (৩ মে) বিকেল ৪ টার দিকে উপজেলার পূর্ব বান্দাইল গ্রামে বান্ধবীকে নিয়ে ঘুরতে গিয়ে প্রেম সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কিশোর গ্যাং এর হাতে খুন হন সৌরভ ওরফে রনি। নিহত রনি পার্শ্ববর্তী চান্দহর ইউনিয়নের ওয়াইজনগর গ্রামের নবাব আলীর পুত্র। নিহতের বাবা বাদি হয়ে ৮ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।