নিজস্ব প্রতিবেদক : গণতন্ত্র মঞ্চের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, জনগণের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করা সমাজের মধ্যে কেবল হিংসা, ঘৃণা, বিদ্বেষ ও বিভাজন তৈরী করে। নেতারা একইসাথে বাংলাদেশ সরকারকে বিজেপি’র এই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা ও বিভাজনের রাজনীতি সম্পর্কে ভারত সরকারের প্রতি প্রতিবাদ জানানোরও আহ্বান জানান।

আজ রোববার গণঅধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গণতন্ত্র মঞ্চের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সভায় তারা এসব কথা বলেন।

সভায় নেতৃবৃন্দ ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)এর নেতৃবৃন্দের সম্প্রতি ইসলাম ধর্মের নবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর সম্পর্কে কটুক্তির নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। নেতৃবৃন্দ বলেন, জনগণের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করা সমাজের মধ্যে কেবল ঘৃণা,হিংসা-বিদ্বেষ এবং বিভাজন তৈরি করে। কোন প্রকৃত ধার্মিকই অপর ধর্ম সম্পর্কে অবমাননাকর কোন বক্তব্য প্রদান করতে পারেন না।

সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন , ভারতের বিজেপি সরকার ধারাবাহিকভাবে যে সাম্প্রদায়িক সহিংসতাকে উস্কানি দিয়ে চলেছে তা ভারতসহ গোটা উপমহাদেশে একটি সাম্প্রদায়িক উত্তেজনার জমিন তৈরি করছে। নেতৃবৃন্দ এই ধরনের সাম্প্রদায়িক উস্কানীমূলক অতৎপরতা থেকে বিরত থাকার জন্য মোদি সরকার ও বিজেপির প্রতি আহ্বান জানান।

গণঅধিকার পরিষদ এর সদস্য সচিব নুরুল হক নুরের সভাপতিত্বে গনতন্ত্র মঞ্চের এই সভায় উপস্থিত ছিলেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক,ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু,নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ্ কায়সার,জেএসডির কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, গণসংহতি আন্দোলনের নির্বাহী সমন্বয়ক আবুল হাসান রুবেল, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সমন্বয়ক এডভোকেট হাসনাত কাইয়ূম, গণঅধিকার পরিষদের যুগ্মআহ্বায়ক রাশেদ খান ,ফারুক হাসান,গণসংহতি আন্দোলনের রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য মনির উদ্দিন পাপ্পু,বিপ্লবী ওয়াকার্স পার্টির রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য আকবর খান, নাগরিক ঐক্যের প্রেসিডিয়াম সদস্য মমিনুল ইসলাম,কার্যকরী সদস্য সাকিব আনোয়ার, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্যসচিব হাবিবুর রহমান রিজু, রাষ্ট্রসংস্কার আন্দোলনের হাবিবুর রহমান প্রমুখ।