নিরাপদ আশ্রয়ে রয়েছে ফিশিংবোট বহর। দুবলারচরের ভাঙ্গার খাল থেকে শনিবার সকালে তোলা ছবি। ছবি : প্রতিনিধি       

শেখ মোহাম্মদ আলী, সুন্দরবন অঞ্চল প্রতিনিধি : দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় বঙ্গোপসাগর উত্তাল। প্রবল ঢেউ ও দমকা বাতাসে সাগরে টিকতে না পেরে ফিশিংবোট বহর ঘাটে ফিরে এসেছে। অনেক বোট সুন্দরবনসহ উপকূলের বিভিন্ন স্থানে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে। আবহাওয়া দপ্তর ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত জারী করেছে।

দুবলারচরের মেহের আলীর ভাঙ্গার খাল থেকে পিরোজপুরের ইন্দুরকানি এলাকার ফিশিংবোট “এফবি ভাই ভাই” এর মাঝি আঃ খালেক শনিবার(১০ সেপ্টেম্বর) সকালে মোবাইল ফোনে জানান, গত দুইদিন ধরে সাগরের আবহাওয়া খারাপ হয়েছে। ঝড়ো বাতাস ও বড় বড় ঢেউয়ে ফিশিংবোট গুলো সাগরে মাছ ধরতে না পেরে বেশির ভাগ বোট নিজ নিজ ঘাটে ফিরে গেছে। কিছু বোট সুন্দরবনের দুবলার ভাঙ্গার খাল, ভেদাখালী সহ বিভিন্ন খালে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে।

পিরোজপুরের পাড়েরহাটের মৎস্য আড়তদার ও ফিশিংবোট মালিক মোঃ ইকবাল হোসেন জানান, সাগরের পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় তাদের অনেক বোট উপকূলের মহিপুর ও নিদ্রাসখিনায় আশ্রয় নিয়েছে। ৬৫ দিনের অবরোধের পরে জেলে মতস্যজীবিরা সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে চার দফায় দুর্যোগের কবলে পড়ে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছে ফলে জেলে ও বোট মালিকরা সর্ব শন্ত হয়ে দেনায় জর্জরিত হচ্ছে। এখন পেশা বদলের চিন্তা করার সময় হয়েছে বলে ইকবাল আড়তদার জানিয়েছেন।

বরগুনা জেলা ফিশিং ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, সাগর উত্তাল হওয়ায় প্রায় সব ফিশিংবোট ঘাটে ফিরে এসেছে। কিছু বোট ফিরে আসার পথে রয়েছে।

পূর্ব সুন্দরবনের দুবলা ফরেস্ট টহল ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিলীপ মজুমদার মুঠোফোনে বলেন, পূর্ণিমার প্রভাবে সাগরে পানির উচ্চতা বেড়েছে। আকাশ মেঘাচ্ছন্ন। থেমে থেমে হালকা বৃষ্টি ও দমকা বাতাসে বইছে।৩০/৩৫টা ফিশিংবোট দুবলার ভেদাখালী ও ভাঙ্গার খালে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে বলে ঐ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন।