জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বিএনপির অর্ধ শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন সরিষাবাড়ী পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক আশরাফ ফকির ও বিএনপি কর্মী সুলতান মিয়া।

নাশকতা সৃষ্টির অভিযোগ তুলে এস আই মোর্শেদ আলম বাদী হয়ে সোমবার সরিষাবাড়ী থানায় মামলাটি দায়ের করেন। পৌর বিএনপির সহসভাপতি গোলাম রব্বানি লিকুকে প্রধান করে মামলায় ১৮ জনের নামোল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৫০-৬০ জনকে মামলায় আসামী করা হয়।

সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর রকিবুল হক জানান, বিস্ফোরক, সরকারি কাজে বাধা, হত্যার হুমকি ও জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির অভিযোগে এ মামলা করা হয়েছে। দুইজনকে আটক করা হয়েছে, বাকীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।

এদিকে জামালপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফরিদুল কবীর তালুকদার শামীম অভিযোগ করেন, রোববার সন্ধ্যায় বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তির জন্য আরামনগরস্থ দলীয় কার্যালয়ে স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠান চলাকালে পুলিশ সেখানে এসে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। একই সময় আওয়ামী লীগের একটি অংশ মিছিল নিয়ে আরামনগর বাজারে ঢুকলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ বিএনপির কার্যালয় তছনছ করে অনুষ্ঠানের চেয়ার, মাইক ও ৬টি মোটরসাইকেল জব্দ করে নিয়ে যায়। পুলিশ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা করে উল্টো বিএনপির দুই নেতাকে গ্রেপ্তার ও নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দেয়ার তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান।