মলাইশ-শাহজাদাপুর রাস্তার বেহাল দশা। ছবি: প্রতিনিধি

এম এ করিম, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর ইউনিয়নের মলাইশ থেকে শাহজাদাপুর পর্যন্ত রাস্তাটি উপজেলার সবচেয়ে অবহেলিত রাস্থা। স্থানীয় এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে যুগ যুগ ধরে রাস্তাটি নির্মাণ ও পাকাকরণের দাবির প্রেক্ষিতে কেবল আশ্বাশই পেয়েছেন এলাকাবাসী কিন্তু প্রকৃত কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

স্বাধীনতার ৫০ বছরেও রাস্তাটির পাকাকরণ না হওয়াই হতাশ এলাকার জনগণ। আশার বাণী হলো রাস্তাটি পাকা রাস্তা নির্মাণের জন্য স্থানীয় এলাকাবাসী, সর্বস্থরের জনপ্রতিনিধি ও সর্বশ্রেণির কলম সৈনিকরা লেখনীর মাধ্যমে স্ব স্ব অবস্থানে থেকে সর্বাত্বক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখে চলেছেন ।

অনুসন্ধানে জানা যায়, রাস্তাটির বেহাল দশার চিত্র ইতিপূর্বেও স্থানীয় ও জাতীয় প্রিন্ট মিডিয়া, ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়া ও খোলাবার্তা২৪ ডটকম সহ অনলাইন মিডিয়ায় খবর প্রকাশিত হয়েছে। স্থানীয়, উপজেলা ও জেলার গণমাধ্যম কর্মীরা আন্তরিকতার সহিত জনস্বার্থে তুলে ধরে লেখনীর মাধ্যমে রাস্তাটি নির্মাণ ও পাকাকরণে ভুক্তভোগী জনতার অব্যাহত দাবি একের পর এক তুলে ধরছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) থেকে নির্বাচিত ৫ বারের এমপি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী উকিল আব্দুস সাত্তার ভূইঁয়া বিভিন্ন সময়ে মহান জাতীয় সংসদে দেওয়া নিজ বক্তব্যে উক্ত রাস্তাটিসহ নিজ নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন রাস্তা নির্মাণ ও পাকাকরণের দাবি করার পাশাপাশি সাধ্যমত প্রচেষ্টা চালিয়ে গেছেন। বর্তমান এমপি হিসেবে তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর মহান জাতীয় সংসদে দেওয়া বাজেট অধিবেশনের প্রথম বক্তব্যে তিনি ফের উক্ত রাস্থাসহ সরাইল ও আশুগঞ্জ এলাকার বিভিন্ন রাস্তা নির্মাণ ও পাকাকরণের দাবির পাশাপাশি সরাইলকে পৌরসভা করার জোর দাবি জানান।

একই আসন থেকে নির্বাচিত দুই বারের সাবেক এমপি এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা উক্ত রাস্তাটিসহ নিজ নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন রাস্তা নির্মাণ ও পাকাকরণের জন্য মহান জাতীয় সংসদে জোড়ালো দাবি জানানোর পাশাপাশি সাধ্যমত প্রচেষ্টা চালিয়ে গেছেন।

মহান জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসন এর আওয়ামী লীগ দলীয় বর্তমান এমপি উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম শিউলি আজাদ উক্ত রাস্থাটিসহ সরাইল ও আশুগঞ্জ এলাকার বিভিন্ন রাস্তা নির্মাণ ও পাকাকরণের জন্য মহান জাতীয় সংসদে জোড়ালো দাবি উত্তাপন করার পাশাপাশি সাধ্যমত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসন থেকে বিগত নির্বাচনে এমপি পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী, মহান জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের বিএনপি দলীয় বর্তমান এমপি ও টেলিভিশনে টকশোর পরিচিত মুখ ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা সম্প্রতি এলজিআরডি মন্ত্রী বরাবর উক্ত রাস্থাসহ বিভিন্ন এলাকার ৫টি রাস্তা নির্মাণ ও পাকাকরণের জন্য নিজ উদ্যোগে লিখিত আবেদন করেছেন।

সরাইল উপজেলা পরিষদে দুই বার নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ রফিক উদ্দিন ঠাকুর, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট আব্দুর রহমান, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় মেম্বারগণসহ বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক ও সামাজিক নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ এবং ভুক্তভোগী এলাকার সর্বস্তরের জনগণ স্ব স্ব অবস্থান থেকে রাস্তাটি নির্মাণ ও পাকাকরণে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

সকলের একটাই দাবি মলাইশ-শাহজাদাপুর রাস্তাটি দ্রুত নির্মাণ ও পাকাকরণ করা হউক।

এতকিছুর পরও মলাইশ-শাহজাদাপুর রাস্তাটি স্বাধীনতার ৫০ বছরেও আজও পর্যন্ত পাকাকরণ না হওয়ায় একদিকে হতাশ এলাকাবাসী অন্যদিকে সকলের অব্যাহত প্রচেষ্টার মাঝে নিশ্চয় রাস্তাটি নির্মাণ ও পাকাকরণ হবে এমনটা ভেবে আশায় বুক বেধেঁ আছেন এলাকার অবহেলিত জনগণ।