এম এ করিম, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দীর্ঘ দিন ধরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। অবস্থাদৃষ্টে এখানে বর্ষার পানিরমত মনে হলেও কেবলই বৃষ্টির পানিতে সয়লাব হয়ে আছে বিদ্যালয় মাঠ।

বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী গর্তের মাঝে মাঠের পানি নিষ্কাশন হলেও এটি ভরাট করে গুচ্ছ গ্রাম তৈরীর প্রক্রিয়া চলমান থাকায় বর্তমান মাঠের পানি নিষ্কাশন পথ বন্ধ রয়েছে৷ ফলে বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকেও বৃষ্টি পানি বিদ্যালয়ের মাঠে এসে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

করোনাকালীন সময়ে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে না আসলেও বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও অভিভাবকদেরকে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ায় ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে সরকারি সিদ্ধান্তে বিদ্যালয় খোলা হলে চরম ভোগান্তিতে পড়বে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

দ্রুত পানি নিষ্কাশনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করে বিদ্যালয়ের মাঠের এই জলাবদ্ধতা দূর করতে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

এ ব্যপারে শাহজাদাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অবিনাশ চন্দ্র দেব এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, প্রায় দুই মাস ধরে বিদ্যালয়ের মাঠে বৃষ্টির পানি জমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। বিদ্যালয়ের আশপাশের চতুর্দিকের এলাকা থেকেও বৃষ্টির পানি বিদ্যালয় মাঠে এসে জমা হয়। আগে বিদ্যালয়ের দক্ষিন ও পশ্চিমদিকে পানি নিষ্কাশনের পথ ছিল।

বিদ্যালয়ের দক্ষিণ দিকের স্থানীয় বাসিন্দারা মসজিদ নির্মাণের জন্য তাদের জায়গা ভরাট করে ফেলেছে। এছাড়া পশ্চিমদিকের খাসের জায়গা গুচ্ছ গ্রাম তৈরীর জন্য সরকারিভাবে ভরাট করা হয়েছে। ফলে বিদ্যালয়ের মাঠের পানি নিষ্কাশন পথ বন্ধ হয়ে মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ২০/২২দিন পূর্বে সরাইল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও শাহজাদাপুর ইউপি চেয়ারমানকে বিষয়টি অবহিত করেছি। উপজেলা নির্বাহি অফিসার স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে বিষয়টি দেখার দায়িত্ব দিয়েছেন। তবে অদ্যাবদি জলাবদ্ধতা নিরসনে ও পানি নিষ্কাশন পথ সৃষ্টির জন্য দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নিতে কাউকেই দেখেনি।

দ্রুত বিদ্যালয়ের মাঠের জলাবদ্ধতা নিরসনসহ পানি নিষ্কাশন পথ সৃষ্টির দাবি জানিয়েছেন তিনি।