ফাইল ছবি

ইন্দুরকানী (পিরোজপুর) সংবাদদাতা : পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে নতুন বই পায়নি মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীরা। ইন্দুরকানীতে সময়মত নতুন পাঠ্যবই না পৌছানোয় বছরের প্রথম দিনে নতুন বই পায়নি মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীরা। প্রাথমিকেও ৩য় থেকে ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা ৫০ শতাংশ বই পেয়েছে। সরকার করোনার কারনে বই উৎসব না করে ৪ ভাগে ভাগ করে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরনের সিদ্ধান্ত নেয়।

সে হিসাবে ১ জানুয়ারী মাধ্যমিক স্তরে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর বই বিতরনের কথা ছিল। কিন্ত সময়মত বই না পৌছায় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কোন শিক্ষার্থী নতুন বই পায়নি। উপজেলার মাদরাসাগুলোতে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর বই পেলেও ৭ম, ৮ম ও ৯ম শ্রেণীতে শুধুমাত্র আইসিটি বই এসে পৌছেছে।

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর কোন বই আসেনি। ৭ম ও ৮ম শ্রেণীতে আংশিক এবং ৯ম শ্রেণীতে শুধুমাত্র গ্রুপের বই এসেছে। অপরদিকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩য়, ৪র্থ এবং ৫ম শ্রেণীতে ৫০ শতাংশ বই এখনও এসে পৌছায়নি।

ইন্দুরকানী মেহেউদ্দিন পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যারয়ের প্রধান শিক্ষক সেলিম খান জানান, ৬ষ্ঠ শ্রেণীর বই না আসায় তারা বিতরণ করতে পারেনি। অন্যান্য ক্লাশের বই আংশিক পাওয়া গেছে।

বালিপাড়া ইউনিয়ন আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ আব্দুর রহিম খান জানান, মাদরাসার ৭ম থেকে ৯ম শ্রেণীর শুধুমাত্র আইসিটি বই এসেছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: শহিদুল ইসলাম জানান, ৩য় থেকে ৫ম শ্রেণীর ৫০ শতাংশ বই পথে আছে। বাকি সব বই এসেছে এবং বিতরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ইন্দুরকানী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মীর এ.কে.এম আবুল খায়েরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি একটু বাহিরে আছি। আগামীদিন অফিসে আসেন, কাগজপত্র দেখে বলব।