শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার শেরপুর উপজেলা থেকে ১২০০ বস্তা সারসহ ৬জনকে আটক করেছে র‌্যাব। এ বিষয়ে শেরপুর থানায় ৭ জনের নামে মামলা হয়েছে। শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) দুপুরে র‌্যাবের নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফরহাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) সন্ধায় শেরপুর উপজেলার বিশাপুর ইউনিয়নের (চৌমহনী বাজার) বামিহাল এলাকা থেকে তাদের আটক করে।

আটককৃত ব্যক্তিরা হলেন, ট্রাকচালক বগুড়ার কাহালু উপজেলার গুরবিশা গ্রামের মো. সবুর হোসেন (২৮), মো. রুহুল আমিন (৩০), বগুড়া সদরের মালতিনগরের মো. তানবির হোসেন (২৩), তাদের সহকারী মো. ইমরান হোসেন (২৩), মো. রাকিব হোসেন (১৯) ও মো. বিশু (২৩), তুলা মিয়া (৩৮)।

জানা যায়, নাটোর থেকে কয়েকটি ট্রাকে করে নাটোরে সরকারি ডিএপির ১২০০ বস্তা সরকারি সার পাচার করে বগুড়ার দিকে নিয়ে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এ খবর পেয়ে বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার বিশালপুর ইউনিয়নের (চৌমহনী বাজার) বামিহালি এলাকায় রাস্তার ওপর চেকপোস্ট র‌্যাব। এ সময় তিনটি ট্রাকভর্তি সরকারি ১২০০ বস্তা ডিএপি সার জব্দ করা হয়। তিন ট্রাকের চালক ও তাদের সহকারী ৬ জনকে আটক করা হয়।

নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফরহাদ হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে শেরপুর থানায় এ বিষয়ে একটি মামলা হয়েছে। আটককৃত ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে সার পাচারের সঙ্গে জড়িত বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে শেরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শেরপুর থানায় ৭ জনের নামে মামলা হয়েছে মামলা-৩ (৭ জানুয়ারি ২২), তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।