শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার শেরপুরে শাহবন্দেগী ও মির্জাপুর ইউনিয়নের গ্রাহকের কাছ থেকে খুঁটি দেয়ার নাম করে অবৈদভাবে টাকা উত্তোনের প্রতিবাদে সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় বাসষ্ট্যান্ডে মানববন্ধ করেছে গ্রাহকেরা। পরে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে গিয়ে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

জানা যায়, শেরপুরের নর্দান ইলেক্ট্রিসিটি কোম্পানী (নেসকো) লিমিটেড কয়েক বছর আগে খুটি না দিয়ে বাঁসের খুটির মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি বিদ্যুত সংযোগ দেয়। এতে এলাকাটি ঝুকিপূর্ন হয়। পরবর্তীতে ঠিকাদারের মাধ্যমে বিনামূল্যে শাহবন্দেগী ও মির্জাপুর ইউনিয়নে খুটি দেয়ার কাজ শুরু করেন।

দায়িত্বে থাকা প্রকৌশলী মামুন, উচরং গ্রামের মৃত ছালেম উদ্দিনের ছেলে সুজাব আলী ও মৃত মতিউর রহমানের ছেলে আলমগীর নেসকো অফিসে দেয়ার কথা বলে গ্রাহকের কাছ থেকে ৫ হাজার করে টাকা নেয়। যেসব গ্রাহক টাকা দেয়নি তাদের খুটি দেয়া হয়নি বলেও অভিযোগ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ১৯ সেপ্টেম্বর সোমবার বেলা ১১টার দিকে শেরপুর বাসষ্ট্যান্ডে ওই দুই ইউনিয়নের গ্রাহকেরা মানববন্ধন করেন। পরে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।

এ ব্যাপারে খোট্টাপাড়া গ্রামের কুরবান আলীর ছেলে গ্রাহক স্বপন আলী বলেন, খুটি দেয়ার কথা বলে আমার কাছ থেকে ৮ হাজার টাকা চেয়েছিল। আমি ৬ হাজার টাকা দিয়েছি। ২ হাজার টাকা বাকি থাকায় আমার খুটির সাথে বৈদ্যুতিক তার টানানো হয়নি। আমাদের গ্রামের অনেকের কাছ থেকে এরকম টাকা নিয়েছে।

এ ব্যাপারে শেরপুর বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের (নেসকো) নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল জলিল বলেন, অভিযুক্ত ব্যাক্তিরা আমাদের অফিসের কেউনা। তারা দালাল শ্রেনীর মানুষ। সহজ সরল মানুষের কাছ থেকে তারা সুযোগ বুঝে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। গ্রাহকদের সচেতনতায় আমরা প্রত্যেক গ্রামে মাইকিং এর ব্যবস্থা করেছি। যাতে কেউ প্রতারণার শিকার না হয়।