এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁ হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজে রসিদ ছাড়াই শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রবেশপত্র (অ্যাডমিট) ফি ৫শ টাকা করে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে, নওগাঁ হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজে প্রথমবর্ষ থেকে চতুর্থ বর্ষ পর্যন্ত প্রায় ৪০০ শিক্ষার্থী আছেন। পরীক্ষার আগে সবার কাছ থেকে প্রবেশপত্রের জন্য ৫০০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে। তবে টাকা নেয়া হলেও কোন প্রকার রসিদ দেয়া হচ্ছে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষার্থী জানান, প্রবেশপত্রের ফি হিসেবে যে টাকা নেয়া হচ্ছে তার কোনো রসিদ দেয়া হচ্ছে না। এছাড়া করোনার মধ্যে প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও প্রতিমাসের বেতন নেয়া হচ্ছে ১ হাজার টাকা করে। যদি বেতনের টাকা কিছু কম নেয়া হতো আমাদের জন্য ভালো হতো। এত টাকা দেয়াও আমাদের জন্য এখন বেশ কষ্টসাধ্য ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এক প্রকার বাধ্য হয়েই প্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত বেতন ও প্রবেশপত্রের ফির জন্য টাকা দিতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে নওগাঁ হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল্লহ আল সাফায়েত শামীম সাংবাদিকদের বলেন, প্রবেশপত্র দিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৫০০ টাকা নেয়ার অভিযোগ মিথ্যা। তবে বেতন নেয়ার কথা তিনি স্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান দিলীপ কুমার রায় বলেন, রসিদ ছাড়া প্রবেশপত্র নেয়ার কোনো নিয়ম নেই। নওগাঁর হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজে এমনটা ঘটে থাকলে শিক্ষার্থীদের ম্যানেজিং কমিটি/ গর্ভনিং বডি বা আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ দিতে হবে। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেব।

এ ছাড়া যদি কোনো দরিদ্র বা অসহায় শিক্ষার্থী থেকে থাকে, তাহলে তারা আবেদন করলে বিশেষ বিবেচনায় মাসিক বেতন কমানোর ব্যবস্থাও করা হবে।