এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁয় সদর উপজেলার কীর্ত্তিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র সিফাতকে আত্মহত্যার প্ররোচনা কারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার নওগাঁ-বদলগাছী আঞ্চলিক সড়কের কীর্ত্তিপুর বাজারে সিফাতের স্কুলের সহপাঠি ও এলাকাবাসীররা এ মানববন্ধন করে।

এ মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ১৭ ফেব্রুয়ারি কীর্ত্তিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের কোভিড ১৯ এর কার্যক্রমে সিফাত স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব পালনকালে বহিরাগত মিঠু তার দলবল নিয়ে সিফাতকে মারধর করে। এ বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানালেও তারা কোন পদক্ষেপ নেয় না। পরবর্তীতে আবারও মে মাসের ৩১ তারিখে স্কুলের এ্যাসেম্বিলিতে দাঁড়ানোকে কেন্দ্র করে ওই স্কুলের সহকারি শিক্ষকের ছেলে স্মরণ শাহরিয়াসহ দুই শিক্ষার্থী তাকে মারধর করে। এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষককে জানালেও আবারো তিনি কোন ব্যবস্থা নাই নাই।

এ সময় স্বরণ শাহারিয়ার বাবা সিফাতকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং বিদ্যালয় হতে টিসি প্রদানের হুমকিও দেন। এ সময় উপস্থিত স্মরণ শাহারিয়াসহ আরও দুই শিক্ষার্থীর সিফাতকে গালিগালাজ ও আত্মহত্যার প্ররোচনা দেয়। ওখান থেকে সিফাত বাড়ি ফিরে রাতে গ্যাস বড়ি খেলে প্রথমে তাকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে পরবর্তীতে রাজশাহী মেডিকেল ভর্তি করালে পরের দিন দুপুরে সিফাতের মৃত্যু হয়।

বক্তারা আরও বলেন, এ ঘটনায় সিফাতের বাবা স্কুলের প্রধান শিক্ষকসহ ৮ জনরে নামে মামলা হলে পুলিশ এখনও কাউকে গ্রেফতার করে নাই। তাই দ্রুত সিফাত হত্যার প্ররোচনাকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি জানান তারা।