সুন্দরবন অঞ্চল প্রতিনিধি : শরণখোলায় বাল্যবিয়ে দেওয়ার অপরাধে কণার পিতাকে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ সময় বরসহ বরের পিতা ও কাজী পালিয়ে যায়। দন্ডিতকে মঙ্গলবার সকালে বাগেরহাট জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার কদমতলা গ্রামের শাহআলম মুন্সির বাড়িতে তার নাতনি তানিয়া আক্তার (১৬)কে উপজেলার নলবুনিয়া গ্রামের মোঃ হারুনের পুত্র মোঃ বাদলের সাথে বিয়ের আয়োজন করেছিলো।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী মাজিস্ট্রেট মোঃ নুর-ই আলম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট ঐ বাড়িতে অভিযান চালায় এসময় বরসহ বরের পিতা ও কাজী পালিয়ে যায়।

উপজেলা নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট মোঃ নুর-ই আলম সিদ্দিকী বলেন, বাল্যবিয়ে দেওয়ার অপরাধে কণ্যার পিতা আবুল বারিককে বাল্যবিয়ে নিরোধ আইন ২০১৭ অনুযায়ী ৬ মাসের বিনাশ্রমে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দন্ডিত বারিকের বাড়ি খুলনা জেলার কয়রা উপজেলার তেঁতুলতলা মহেশ্বরীপুর গ্রামে।

শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকরাম হোসেন জানান, মোবাইল কোর্টে দন্ডিত আসামিকে মঙ্গলবার সকালে বাগেরহাট জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।