ছবিটি উপজেলার মঠেরপাড় গ্রাম থেকে বুধবার বিকেলে তোলা         

শেখ মোহাম্মদ আলী, সুন্দরবন অঞ্চল প্রতিনিধি : শরণখোলায় আমন ক্ষেতে শীষ কাটা পর্দা ও লেদা পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে। পোকা ধান গাছের শীষ কেটে দিচ্ছে। ফসল উৎপাদন মারাত্মকভাবে কমে যাওয়ার আশংকায় চাষীরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

সরেজমিনে শরণখোলার বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে মাঠে মাঠে ধান ক্ষেতে কৃষকদের কীটনাশক স্প্রে করার দৃশ্য দেখা গেছে। উত্তর কদমতলা গ্রামের কৃষক রফিকুল ইসলাম নাসিম জানান, তার চাষকৃত সাত একর জমিতে আমন ধান গাছে ব্যপকভাবে পর্দা ও লেদা পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে।

পোকায় ধান গাছ কেটে দেয়ায় ফসল আশানুরুপ হবেনা বলে তিনি আশংকা প্রকাশ করে বলেন, বাজার থেকে কীটনাশক কিনে ক্ষেতে স্প্রে করা হচ্ছে। কৃষি বিভাগের কোন তৎপরতা নেই বলে নাসিম অভিযোগ করেন।

উপজেলার মঠেরপাড় গ্রামের কৃষক জামাল খলিফা বলেন, এবার অতিবর্ষণে বীজতলা নষ্ট হওয়ায় কচুয়া উপজেলা থেকে চড়াদামে আমণের চারা কিনে ছয় একর জমিতে রোপন করেছি তা এখন লেদা পোকায় শেষ করে দিচ্ছে বাজার থেকে কীটনাশক কিনে ক্ষেতে দিলেও তেমন কাজ হচ্ছে না।

মঠেরপাড় গ্রামের কৃষক বাচ্চু খলিফা, সোনাতলা গ্রামের কৃষক ও আওয়ামীলীগ নেতা আবু রাজ্জাক আকন একই ধরণের কথা উল্লেখ করে লেদা পোকায় ধান ক্ষেত সাবাড় করার উপক্রম হয়েছে বলে তারা জানান।

ধানসাগর ইউপি চেয়ারম্যান মাইনুল ইসলাম টিপু বলেন, ধানসাগর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় ধান ক্ষেতে লেদা ও পর্দা পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে কৃষি বিভাগের তেমন তৎপরতা চোখে পড়েনা বলে তিনি জানান।

শরণখোলা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ ওয়াসিম উদ্দিন বলেন, কিছু কিছু জায়গায় পর্দা ও লেদা পোকার আক্রমণের কথা তিনি শুনেছেন পোকা দমনে কৃষকদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে এবং কৃষি বিভাগ নিরলস কাজ করছেন বলে কৃষি কর্মকর্তা জানান।