লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : জেলার কাজির দিঘির পাড় আলীম মাদরাসার শিক্ষক মনজুরুল কবিরের মুক্তির দাবীতে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচি পুলিশের বাধায় পন্ড হয়ে যায়। আজ রবিবার রায়পুর উপজেলার কাজির দিঘির পাড় মাদ্রাসার সামনে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধন শুরু হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশ বাধা সৃষ্টি করে।

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে গত বৃহস্পতিবার ছয় ছাত্রের চুল কেটে দেওয়া মাদরাসা শিক্ষক মঞ্জুরুল কবির মঞ্জুর জামিন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। রোববার (১০ অক্টোবর) দুপুরে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রায়পুর আদালতের বিচারক তারেক আজিজ তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে লক্ষ্মীপুর জজ আদালতের সরকারি পিপি জসিম উদ্দিন বলেন, শিক্ষক মঞ্জুরুল কবিরকে আদালতে হাজির করে জামিন আবেদন করা হয়। আদালত আবেদন খারিজ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

এর আগে গত ৮ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিএসসি মঞ্জুকে উপজেলার বামনী ইউনিয়নের কাজিরদিঘীর পাড় এলাকা থেকে মোবাইলে ডেকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ওইদিন রাতে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতে সোপর্দ করে গ্রেফতার দেখানো হয়। শনিবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে তাকে লক্ষ্মীপুর আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মঞ্জু রায়পুরের হামছাদী কাজির দিঘীরপাড় আলিম মাদরাসার সহকারী শিক্ষক।

পুলিশ জানায়, শিক্ষার্থীরা ১৮ সেপ্টেম্বর শ্রেণিকক্ষে পাঠ্য কার্যক্রমে অংশ নেয়ার একপর্যায়ে শিক্ষক মঞ্জুরুল কবির দশম শ্রেণির (দাখিল) ছয় ছাত্রকে দাঁড় করিয়ে শ্রেণিকক্ষের সামনের বারান্দা আসতে বলেন। এ সময় তিনি তাদের সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড় করান এবং একটি কাঁচি নিয়ে সবার মাথার টুপি সরিয়ে সামনের অংশের চুল এলোমেলোভাবে কেটে দেন। এ ঘটনার ১ মিনিট ১০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও শুক্রবার সকাল থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এরই জের ধরে পুলিশ তাকে আটক করে।

এদিকে তুচ্ছ ঘটনায় শিক্ষক গ্রেফতার ও কারাগারে প্রেরণের ঘটনায় জেলার সর্বত্র ব্যাপক ক্ষোভ লক্ষ্য করা গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিক্ষক মঞ্জুর আটকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ এবং তার মুক্তির দাবীতে ব্যাপক মতামত লক্ষ্য করা গেছে।

অপরদিকে বিভিন্ন সংগঠন ও বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ শিক্ষক গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে তার মুক্তি দাবী করেছেন। রায়পুর আলীয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নিজাম উদ্দীন শিক্ষক আটকের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তার মুক্তি দাবী করেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমীন শিক্ষকের প্রতি অবমাননার প্রতিবাদ জানিয়ে আটককৃত এই শিক্ষকের মুক্তি দাবী করেন।

বাংলাদেশ আদর্শ শিক্ষক ফেডারেশনের লক্ষ্মীপুর শাখার সমন্বয়কারী অধ্যাপক আব্দুর রহমান রায়পুরের তুচ্ছ ঘটনায় শিক্ষক মঞ্জুরুল কবিরের গ্রেফতারকে পুরো শিক্ষক সমাজের প্রতি অসম্মান করা হয়েছে দাবী করে ভবিষ্যতে এ ধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে তার মুক্তি দাবী করেন।