লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরে ২ কোটি ৫৫ লাখ ৬ হাজার টাকা মূল্যের ৮৫ হাজার ২০ পিস নিষিদ্ধ যৌন উত্তেজক ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) এবং গ্রাম পুলিশ সদস্যসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বুধবার (৪ জানুয়ারি) বিকেল ৩ টার দিকে র‌্যাব-১১ এর সিপিসি-৩ এর নোয়াখালী ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মাহমুদুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

র‍্যাব অফিস সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চররমনী মোহন ইউনিয়নের মধ্য চররমনী গ্রাম থেকে ইয়াবাসহ ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতা মনির হোসেন, গ্রাম পুলিশ সদস্য মো. ইব্রাহিম ও যুবলীগ নেতা আমির হোসেনকে আটক করা হয়।

বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে সদর মডেল থানায় তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে আটক ৩ জনসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। র‍্যাব-১১ এর নোয়াখালী ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার (ডিএডি) নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

গ্রেপ্তারকৃত মনির চররমনী মোহন ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক। এছাড়া ইব্রাহিম একই ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্বরত গ্রাম পুলিশ সদস্য ও আমির ওই ইউনিয়ন যুবলীগের সক্রিয় সদস্য।

এজাহার সূত্র জানায়, গ্রেপ্তার মনির তার বাসায় ইয়াবা রেখে বিক্রি করে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব সেখানে অভিযান চালায়। এসময় র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পলাতক ও অজ্ঞাত আসামিরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে ইউপি সদস্য মনির, গ্রাম পুলিশ ইব্রাহিম ও যুবলীগ কর্মী আমিরকে আটক করা হয়। পরে তাদের কাছ থেকে ৪৩৬টি এয়ার টাইট প্যাকেট ভর্তি ৮৫ হাজার ২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব-১১ এর নোয়াখালী ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মাহমুদুল হাসান বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।