রোহিঙ্গা ক্যাম্প ১৬তে আবারো ভয়াবহ অগ্নিকান্ড। ছবি: প্রতিনিধি

হুমায়ুন কবির জুশান, উখিয়া (কক্সবাজার) : কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের শফিউল্লাহ কাটা রোহিঙ্গা ক্যাম্প ১৬ তে আবারো ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

রোববার ৯ জানুয়ারি বিকাল ৫টায় আগুন লাগে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। তবে আগুন লাগার কারণ এখনো জানা যায়নি। উখিয়া ফায়ার সার্ভিসে খবর দেওয়া হলে ৩০ মিনিট পর ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা পৌঁছেন। উখিয়ার ফায়ার সার্ভিস ইউনিট এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ বা ক্ষ য়ক্ষতির বিষয়ে তাৎক্ষনিক কিছু জানাতে পারেননি। স্থানীয় পালংখাললী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বার বার অগ্নিকান্ডের ঘটনা দুঃখজনক।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সংগ্রাম কমিটির সদস্য সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ সিকদার বলেন, ক্যাম্পে বারংবার আগুন লাগার ঘটনায় রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়দের মাঝেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এ বিষয়ে সঠিক তদন্ত ও কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণ করা জরুরি।

এদিকে নতুন বছরের শুরুতে রোববার (২ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে ২০নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হাসপাতালে আগুন লেগে ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয় বলে জানা গেছে। হেলিপ্যাডের পাশে অবস্থিত সারি আইসোলেশন অ্যান্ড ট্রিটমেন্ট সেন্টারে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। ওই স্থানে টহলরত পুলিশ আগুন দেখে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়।

এসপি নাইমুল হক বলেন, ‘ক্যাম্প পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় রোহিঙ্গারা আগুন নেভানোর কাজ করেন। প্রায় আধাঘণ্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ওই সেন্টারে চারজন করোনা, দুজন ডেঙ্গুরোগী ও চারজন অ্যাটেনডেন্টসহ ১০-১২ জন অবস্থান করছিলেন। অগ্নিকাণ্ডের সঙ্গে সঙ্গে তারা বের হয়ে আসে। ফলে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।’

এপিবিএনের এই কর্মকর্তা জানান, অগ্নিকাণ্ডে আইসোলেশন সেন্টারের ৬০-৭০টি বেড, একটি ফ্রিজ, তিনটি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ক্ষতি হয়েছে। এতে আনুমানিক ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।’