রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : সংবাদ প্রকাশের জেরে রামপাল সরকারি কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে সাংবাদিককে হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাংবাদিক সুজন মজুমদার রামপাল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, রামপাল সরকারি কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. সাইদুর রহমানের আর্থিক অনিয়ম নিয়ে উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা ধারাবাহিকভাবে সংবাদ প্রকাশ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সাইদুর রহমান গত ইং ৮ আগস্ট দুপুর ১ টা ৫৫ মিনিটের সময় তার ব্যবহৃত ০১৭২১-৭৫৮৪১৭ নম্বর থেকে ফোন করেন। ফোনে তিনি অশালীন ভাষায় তুই-তোকারি করে বলেন, তুমি খুব বেড়েছো। এ সব কে করিয়েছে ? তুমি অনেক বাড়াবাড়ি করেছো। আমি ইউএনও অফিসে। আর সুযোগ দেয়া যাবে না, তোমাকে ধরিয়ে দিবো। জামু চেয়ারম্যান তোমাকে খুঁজতিছে ধরার জন্য। তোমার এত হেডেক কেন কলেজের ব্যাপার নিয়ে ?

বিষয়টি নিশ্চিত করে সাংবাদিক সুজন মজুমদার তাৎক্ষনিকভাবে প্রেসক্লাব রামপালের নেতৃবৃন্দকে অবহিত করেন। নেতৃবৃন্দের পরামর্শক্রমে তিনি রামপাল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। যার নম্বর ৫৩১, তাং ১১-০৮-২০২২ ইং।

রামপাল সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সাইদুর রহমানের এমন হুমকির নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন প্রেসক্লাব রামপালের নেতৃবৃন্দ, রামপাল উপজেলা মানবাধিকার কমিশন, রামপাল উপজেলা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি, বঙ্গবন্ধু মোংলা ঘোষিয়াখালী ক্যানেল সংগ্রাম সমন্বয় কমিটিসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন। বিবৃতিতে তারা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবী করেন।

উল্লেখ্য, রামপাল সরকারি কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সাইদুর রহমানের আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতি নিয়ে বেশ কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ করা হয়। তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ বার বার অস্বীকার করে আসছেন। সাংবাদিক সুজনকে হুমকির বিষয়ে তার মুঠোফোনে কথা বলার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। অভিযোগের কলেজ কর্তৃপক্ষ প্রতিকার চেয়ে বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করার পরেও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ।