রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : খুলনা র‌্যাব-৬ এর সদস্যদের অভিযানে উদ্ধার হওয়া অস্ত্রটি ব্যালিস্টিক পরীক্ষার দাবি জানিয়েছে মামলার আসামির স্বজনরা।

জানা গেছে, গত শুক্রবার রাত অনুমান ৮ টার সময় উপজেলার বড়দূর্গাপুরস্থ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের রাস্তার পাশের জনি শেখের মুদি/ ইলেকট্রনিক্সের দোকানে অভিযান চালিয়ে একটি দেশী তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে।

ওই ঘটনায় র‌্যাব-৬ এর ডিএডি নায়েব সুবেদার রফিক উদ্দিন আহমেদ বাদী রামপাল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার নম্বর ০২। তারিখ ০৯-১০-২০২১।

মামলার আসামির পিতা আব্দুল আজিজ ও ভাই জিল্লুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, শত্রুতাপূর্বক আকরাম ও জাহাঙ্গীর ষড়যন্ত্র করে জনিকে ফাঁসিয়ে দিয়েছে।

একই কথা বলেন, ওই গ্রামের মাজহারুল, এহিয়াসহ অনেকে।

তার বলেন, গত ১৯-০৭-২০২১ তারিখ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৪ শ কেজি চুরি হওয়া তামার তারসহ একটি পিকআপ আটক করে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শত্রুতা শুরু করে আকরাম ও জাহাঙ্গীর। তারই ধারাবাহিকতায় গত শুক্রবার (০৮-১০-২০২১) র্যাব কে অসত্য তথ্য প্রদান করে প্রতিপক্ষ।

তারা আরও জানান, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের ব্যালিস্টিক পরীক্ষা করলে প্রকৃত সত্য উদ্ঘাটন হবে। তদন্তে যদি জনির সম্পৃক্ততা পাওয়া যায় তবে তার শাস্তি হোক। তারা খুলনার র‌্যাব-৬ ও রামপাল থানা পুলিশের কাছে আবেদন জানিয়ে বলেন, ঘটনার তদন্ত করলে প্রকৃত সত্য উদ্ঘাটন হবে।