রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : রামপালে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উজলকুড় ইউপির সাবেক জনপ্রিয় চেয়ারম্যান খাজা মইন উদ্দিন আক্তার হত্যা মামলার স্বাক্ষীর বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী প্রতিকার চেয়ে রামপাল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ তদন্তে (রামপাল-মোংলা সার্কেল) এর এএসপি আসিফ ইকবাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার উজলকুড় ইউনিয়ানের চাঁদপুর গ্রামের মৃত হেদায়েত আলীর পুত্র খলিলুর রহমানের বাড়িতে শনিবার অনুমান বেলা সাড়ে ১১টায় চড়াও হয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নেয় প্রতিপক্ষরা।

ভুক্তভোগী খলিলুর রহমান জানান, শংকনগর গ্রামের সাইফুল্লাহ শেখ, হানিফা শেখের নেতৃত্বে আব্দুল্লাহ শেখ, চাঁদপুর গ্রামের মহসিন শেখ, কামাল মোল্লা, ইসমাইল শেখ, আলো আমিন হাওলাদার, আ. রবি শেখ, কাবুল শেখ, জিন্নাত আলী শেখসহ অজ্ঞাত ৫/৬ জন তাকে মারপিট করেন।

এ সময় বাড়িতে প্রবেশ করে মালামাল ভাংচুর, লুটপাট, স্বর্ণালংকার ও নগদ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। খবর পেয়ে স্থানীয়রা ছুটে এলে তারা পালিয়ে যায়। তিনি জানান রামপাল উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উজলকুড় ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আক্তার হত্যার ঘটনার সাক্ষী হওয়ায় প্রতিপক্ষ আসামীদের উষ্কানিতে এ হামলা করা হয়েছে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের সাথে বার বার যোগাযোগ করে কথা বলার চেষ্টা করেও তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে এএসপি (রামপাল-মোংলা সার্কেল) মো. আসিফ ইকবাল এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ বিষয়ে রামপাল থানার ওসি সাহেবকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য বলা হয়েছে। তবে তদন্তের বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করতে চাননি।