রাজশাহী প্রতিনিধি : রাজশাহীর পবা উপজেলার বায়া এলাকায় ‘আমান কোল্ড স্টোরে’ পঁচে গেছে কৃষকের শত কোটি টাকার আলু। এ নিয়ে সকাল থেকে কয়েক শত কৃষক ও আলু চাষি স্টোরের সামনে অবস্থান নিয়ে আছেন। তারা ক্ষতিপূরণের দাবিতে সেখানে অবস্থান করছেন। অন্যদিকে পঁচা আলুগুলো স্টোর থেকে বের বাইরে ফেলে দিচ্ছে স্টোর কর্তৃপক্ষ।

আলু চাষি ও ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেছেন, স্টোরের গ্যাস মেশিন খারাপ থাকার পরেও লাখ লাখ বস্তা আলু লোড করা হয়েছে। ফলে স্বল্প গ্যাসের কারণে আলুগুলো এখন পঁচে গেছে। প্রায় নব্বই ভাগ আলু পঁচে গেছে। যেগুলো পঁচতে বাকি আছে, সেগুলোও বাজারমূল্য পাওয়া যাবে না। কারণ ওই আলুগুলোও গন্ধ হয়ে গেছে। এই অবস্থায় কৃষকদের অন্তত একশ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন তারা।

আলু ব্যবসায়ী কামরুল হাসান বলেন, আমি ৭ হাজার বস্তা আলু রেখেছিলাম কয়দিন আগে। এখন জানতে পারছি আমার সব আলু পঁচে গেছে। এতে আমার প্রায় কোটি টাকা লোকসান হবে।

তিনি আরও বলেন, এক বস্তা আলুর খরচ পড়েছে এবার ১২০০ টাকা করে। সেই হিসেবে ৭০০০ বস্তা আলুর দাম পড়েছে ৮৪ লাখ টাকা। আলু বিক্রি করে অন্তত এক কোটি টাকা দাম পাওয়া যেত।