এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : ১৬ অক্টোবর রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মলনকে ঘিরে জেলা শহরে এখন উৎসব মূখর পরিবেশ বিরাজ করছে। জেলা শহরের সড়ক ও সড়ক দ্বীপগুলোকে কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতাকর্মীদের রঙ্গিন ছবি সম্মিলিত ব্যনার-ফেষ্টুর দিয়ে সাজানো হয়েছে।দৌলতদিয়া ঘাট থেকে সম্মেলন স্থান পর্যন্ত একাধিক তোরণ নির্মান করা হয়েছে। ত্রি-বার্ষিক সম্মলেন হলেও দীর্ঘ ছয় বছর পর এ সম্মলেন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা উচ্ছাসিত উজ্জিবিত।

কারণ নতুন নেতৃত্ব তৃনমুলের মূলায়্যন করবে। সৎ ও যোগ্য ব্যক্তিদের নেতৃত্বে আনার দাবি নেতাকর্মীদের।
এ সম্মলেনের মাধ্যমে কে হবেন নতুন সভাপতি ও সেক্রটারী এ গুঞ্জন জেলা তৃনমূল থেকে জেলা পর্যায়ের নেতাদের মুখে মুখে এখন মুখ্য আলাচিত বিষয়। সম্মেলনে সভাপতি পদে ৩ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৩ জন প্রার্থী হয়েছেন।

এ উপলক্ষ্যে রাজবাড়ী শহরের শহীদ খুশি রেলওয়ে মাঠে তৈরী করা হয়েছে বিশাল প্যান্ডেল ও সুউচ্চ মঞ্চ। যেখানে লক্ষাধিক নেতাকর্মীর ধারনের আয়োজন রয়েছে।

সম্মেলনকে ঘিরে ব্যানার, পোস্টার ও ফেস্টুন টাঙানো হয়েছে শহরজুড়ে। বিভিন্ন স্থানে তৈরি করা হয়েছে শুভেচ্ছা তোরণ। নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে উৎসাহ-উদ্দিপনা।

কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক ওয়ায়দুল কাদেরসহ প্রায় এক ডজন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এ সম্মেলনে উপস্তিত থাকবেন বলে জেলা কমিটির নেতৃবৃন্ধ জানিয়েছেন।

তৃণমূলের একাধিক কর্মী জনায়েছেন,এ রকম জাকজমকপূর্ন সম্মেলন ইতিপুর্বে কখনো রাজবাড়ীতে হয় নাই।
সবশেষ ২০১৪ সালে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেসময় জিল্লুল হাকিমকে সভাপতি ও কাজী কেরামত আলীকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।