এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচনে নৌকার হাল ধরে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হতে দলীয় নমিনেশন প্রত্যাশি পরীক্ষিত আওয়ামী লীগ নেতা ও সমাজসেবক মোঃ আকরাম হোসেন। চন্দনী ইউপির আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আকরাম হোসেন বর্তমান ওই ইউপি আওয়ামী লীগের সিনিয়র কার্যকরি কমিটির সদস্য।

ওই ইউপির বিশিষ্ট সমাজসেবক পরীক্ষিত আওয়ামী লীগ নেতা ও ক্লিন ইমেজের সদালোপী ও সংগঠক আকরাম হোসেন এখন চন্দনী ইউপিতে সব শ্রেনীপেশার মানুষের কাছে অত্যান্ত জনপ্রিয় একজন মানুষ। সৎ ও যোগ্য এবং শিক্ষিত মানুষ আকরাম হোসেন নিজ দল ছাড়াও অন্যান্য দল মতের মানুষের কাছে সমানভাবে সমাদৃত।
ছাত্র জীবন থেকেই তিনি আওয়ামী রাজনীতির সাথে ঘনিষ্টভাবে জড়িত।

আকরাম হোসেন দীর্ঘদিন ধরেই চনদনীর সব শ্রেনী পেশার মানুষে সাথে মিশে তাদের আপনজন হয়ে কাজ করে চলেছেন।

সে সব খেটে খাওয়া মানুষের অনুরোধেই তিনি নৌকার হাল ধরে চনদনী চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হওয়ার প্রত্যাশা করছেন।

তিনিসহ চনদনী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আরো পাচ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। যারা দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে নির্বাচন করতে প্রত্যাশা করছেন। এ জন্য তার প্রত্যেকেই জেলা ও উপজেলা কমিটির সাথে জোর লবিং চালাচ্ছেন।

আকরাম হোসেন সম্প্রতি সাংবাদিকদের জানান, চন্দনী ইউনিয়নকে সস্ত্রাস ও মাদক মুক্ত, আধুনিক ও মডেল করে গড়ে তোলার জন্যই তিনি চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়ে আরো উন্নত সেবা করতে চান ।

সম্প্রতি চেয়ারম্যান প্রার্থী আকরাম হোসেন সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় কালে জানান, এলাকার মানুষের পাশে থেকে সুখ-দুখের ভাগী হয়ে গরীব,দুখি মানুষের ভাগ্যের ও শিক্ষাসহ সার্বিক উন্নয়নের জন্য ২০২১সালে নবাবপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে অংশ গ্রহন করে তিনি বিপুল ভোটে বিজয় অর্জন করবেন বলে আশা করেন।

সাংবাদিকদের তিনি জানান, তিনি চনদনী ইউনিয়নের সব শ্রেনী পেশার মানুষ আকরাম হোসেনের মত সাদা মনের, দানশীল ও সমাজ সেবক মানুষকে ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে দেখতে চান বলেই তিনি আসন্ন নির্বাচনে তিনি চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, তিনি নির্বাচিত হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার একজন সৈনিক হিসাবে তার উন্নয়নে ধারা অব্যাহত রেখে এলাকাকে মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত রাখব। চন্দনী নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা হবার পর থেকেই তুহিন কমী-সমর্থকদের সাথে নিয়ে

ভোটারদেরর বাড়ি বাড়ি গিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় ও ভোট প্রার্থনা করে ব্যস্থ সময় পার করছেন।