এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অনুপ্রেণনার উৎস, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জেলে থাকাকালীন দল পরিচালনায় অন্যতম ভূমিকা পালন করেছেন তিনি। দলের দিক নির্দেশনা দিয়েছেন সামলিয়েছেন সংসার, নেতা কর্মীদের খাওয়ানো ছিল তার অন্যতম নেশা, শেখ মুজিবের অনুপ্রেরনা যুগিয়েছেন তিনি, শেখ মুজিবুর রহমানকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল তখন বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব তা প্রত্যাখ্যান করতে বলেছিলেন। যোগ্য নেতার যোগ্য সহধর্মীনি ছিলেন বঙ্গমাতা।

পাংশা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে সোমবার বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপি এসব কথা বলেন।

পাংশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ আলী’র সভাপতিত্বে শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে ”মহীয়সী বঙ্গমাতার চেতনা, অধম্য বাংলাদেশের প্রেরণা” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার শ্যামল কুমার বিশ্বাসের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফরিদ হাসান ওদুদ, পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাসুদুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এ.কে এম শফিকুল মোরশেধ আরুজ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ জালাল উদ্দিন বিশ্বাস, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খোন্দকার সাইফুল ইসলাম ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা এম এ নাহার প্রমুখ।

এ সময় নির্বাচিত অসহায় ও অসচ্ছল মহিলাদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়। তার আগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক- ২০২২ প্রদান অনুষ্ঠান ভার্চুয়ালী অংশ গ্রহণ করেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলেই। এ সময় উপজেলার সকল দপ্তরের কর্মকর্তাগন, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগন, স্থানীয় সাংবাদিক বৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।