রাঙামাটি প্রতিনিধি : রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে দু’দিনে বজ্রপাতে দু’শিক্ষার্থী নিহত ও একজন আহত হয়েছে। নিহতরা হলেন, রুপসী চাকমা (১৪) ও অর্ক চাকমা (১৮)।

পুলিশ, হাসপাতাল ও স্থানীয়রা জানিয়েছে, রাঙামাটির ভারত সীমান্ত লাগোয়া উপজেলা বাঘাইছড়িতে সোম ও মঙ্গলবার দু’দিনে বজ্রপাতে দু’শিক্ষার্থী নিহত ও একজন আহত হয়েছে। বাঘাইছড়ির খেদারমারা এলাকায় মঙ্গলবার দুপুরে বজ্রপাতে ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী রুপশি চাকমা নিহত হয়। সে স্থানীয় পুলিন বিহারী চাকমার মেয়ে ও
খেদারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন। বজ্রপাতে নিহত ছাত্রীর মা অনিতা চাকমাও গুরুতরভাবে আহত হয়।

খেদারমারা ইউপি চেয়ারম্যান বিটু চাকমা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তারা মা-মেয়ে মঙ্গলবার দুপুর আনুমানিক ২ টায় বাড়ীতে ভাত খাবার সময় বজ্রপাতে হতাহত হয়। ঘটনার পর পর মূমুর্ষ অবস্থায় বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

উপজেলার সরোয়াতলীতে সোমবার সন্ধ্যার সময় বজ্রপাতে অর্ক চাকমা নামে একজন কলেজ ছাত্র মারা গেছে। সে রাঙামাটি সরকারি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র এবং স্থানীয় পূর্বহিরাচর এলাকার বাসিন্দা মিহির কান্তি চাকমার ছেলে। নিহতের সহপাঠী বিধান চাকমা জানান, সোমবার সন্ধ্যার দিকে এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ফেরার পথে ঝড়ো হাওয়া আর বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের কবলে পড়ে তারা। এ সময় বজ্রপাতে সে ঘটনাস্থলেই প্রান হারায় ।

বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বজ্রপাতে দু’ শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে আমরা মর্মাহত হয়েছি। রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বজ্রপাতে হতাহতের পরিবারকে আর্থিকভাবে সহায়তার প্রদান করা হবে।