রাঙামাটি প্রতিনিধি : রাঙামাটিতে যৌথ বাহিনীর পৃথক দুটি অভিযানে নগদ টাকা ও ২টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ২ জন সন্ত্রাসীকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন- ভাগ্যধন চাকমা (৪০) ও সুইচিং মং মারমা (৩০)।

পুলিশ জানিয়েছে, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রাঙামাটি জেলা সদরের মগবান দেখাইয়া পাড়া ও শহরের নতুন মুসলিম পাড়া থেকে রোববার ও সোমবার পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে স্থানীয় বিন্দু লাল চাকমা’র ছেলে ভাগ্যধন চাকমা ও আলুং মং মারমা’র ছেলে সুইচিং মং মারমাকে আটক করে।

যৌথ বাহিনী ব্যাপক তল্লাশি চালিয়ে প্রথম জনের কাছ থেকে দেশীয় তৈরি গাদা বন্দুক, নগদ ১ লাখ ৩৭ হাজার টাকা, ৫টি মুঠোফোন ও ৫ টি চাঁদাবাজির রেজিষ্টার উদ্ধার করে। সোমবারেও যৌথ বাহিনীর হাতে আটক হয় আরেকজন পাহাড়ি সন্ত্রাসী। তার নাম সুইচিং মং মারমা । তাকে শহরের নতুন মুসলিম পাড়া থেকে আটক করে।

এ সময় তার কাছ থেকে ৪ রাউন্ড কার্তুজসহ ১টি ওয়ান সুটার গান উদ্ধার করা হয়। সে চন্দ্রঘোনা থানার রাইখালীর ডলুছড়ির বাসিন্দা। পুলিশ বাদী হয়ে এ সংক্রান্তে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেছে। আটক সন্ত্রাসীকে আদালতে তোলা হলে বিজ্ঞ আদালত তাদেরকে জেলে প্রেরণ করে।

রাঙামাটি কোতয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ আরিফুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অস্ত্র, মাদক ও জুয়াসহ অপরাধ দমনে পুলিশের এ তৎপরতা অব্যাহত থাকবে।