মিজানুর রহমান মিজান, রংপুর অফিস : রংপুরের বদরগঞ্জ পৌরশহরে এক নববিবাহিতা তরুণীকে কবরস্থানে নিয়ে দুই তরুণ মিলে ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় করা মামলায় অভিযুক্ত এক তরুণকে গতকাল আজ বুধবার ভোড় রাতে বদরগঞ্জ পৌরসভা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বদরগঞ্জ পৌর শহরে কবরস্থানে নিয়ে দুই তরুণ মিলে নববিবাহিত তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় এক ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে বদরগঞ্জ থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত তরুণের নাম আকরাম হোসেন (২২)। তার বাড়ি বদরগঞ্জ পৌরসভায়।

পুলিশ জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী একটি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। মাস ছয়েক আগে তাঁর বিয়ে হয়। বাড়ি থেকে অভিমান করে বের হয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তিনি।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২৪ অক্টোবর দুপুরে স্বামীর সঙ্গে ওই নববিবাহিত তরুণীর সঙ্গে তার স্বামীর মনোমালিন্য হয়। অভিমান করে বাড়ি থেকে বের হয়ে বেলা আড়াইটার দিকে তিনি বদরগঞ্জ পৌরসভার রেললাইন ধরে একাই হাঁটছিলেন। দুই তরুণ তার পিছু নেন।

এক পর্যায়ে তার সঙ্গে কথা বলা শুরু করেন। দুই তরুণ তাঁকে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে একটি হোটেলে ভাত খাওয়ান। বিকেল চারটার দিকে তাঁকে কবরস্থানে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন দুই তরুণ। তারা সেই ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করেন। ওই গৃহবধূর কাছে থাকা ৯৫০ টাকা, মুঠোফোন সেট ও কানের স্বর্ণের দুল ছিনিয়ে নেন ঐ ধর্ষক দুই তরুণ।

এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার রাতে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বদরগঞ্জ থানায় ধর্ষণের মামলা করেন। পরে গত রাত তিনটার দিকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আকরাম হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে।

বদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তার আকরাম হোসেন পুলিশের কাছে ওই নববিবাহিত তরুণীকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। ওই ঘটনায় জড়িত অপরজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। তাঁকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।