ময়মনসিংহ অফিস : ময়মনসিংহে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বিএনপিপন্থী নয় আইনজীবির জামিন বহাল রেখে দুই আইনজীবিকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) ময়মনসিংহ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. হেলাল উদ্দিন শুনানি শেষে অ্যাডভোকেট উছমান গণি মল্লিক (মাখন) ও অ্যাডভোকেট তোফাজ্জল হোসেন ওরফে বিডি তোফাজ্জলকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জেলা বারের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট নুরুল হকসহ অপর নয় আইনজীবীকে পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া পর্যন্ত জামিন দিয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ময়মনসিংহের আদালতপাড়ায় কর্মসুচী পালনকালে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে মানহানিকর স্লোগান দিয়েছেন বলে অভিযোগ করে গত ১৪ সেপ্টেম্বর রাতে ১১ জন আইনজীবীর বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করেন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ময়মনসিংহ জেলা শাখার সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আবুল কালাম মুহাম্মদ আজাদ।

এরপর ১৯ সেপ্টেম্বর বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে আট সপ্তাহের আগাম জামিন নেন বিএনপিপন্থী ওই ১১ জন আইনজীবি। এদিকে জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী গত ১৬ নভেম্বর ছিল আত্মসমর্পনের পর জামিন শুনানির দিন।

সেদিন জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিএনপিপন্থী আইনজীবিরা আত্মসমর্পনের পর জামিন আবেদন করলে ময়মনসিংহ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. হেলাল উদ্দিন ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধি করেন। মামলায় যুক্তি তর্ক ও শুনানীতে বাদী পক্ষে আদালতে শুনানীতে অংশ নেন পাবলিক প্রসিকিউটর কবীর উদ্দিন ভ‚ইয়া ও বিবাদী পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আব্দুল গফুর।