মেহেরপুর প্রতিনিধি : মেহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭জন কাউন্সিলর পুননির্বাচিত হয়েছেন। বাকি দু’টির মধ্যে একটিতে সাবেক কাউন্সিলর এবং অপরটিতে নতুন মুখ এসেছে।

এ ছাড়া মেয়র পদেও পুননির্বাচিত হয়েছেন মাহফুজুর রহমান রিটন। তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেন।

বুধবার অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডে মীর জাহাঙ্গীর আলম (পানির বোতল), ২ নম্বর ওয়ার্ডে আল মামুন (টেবিল ল্যাম্প), ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সৈয়দ আবু আব্দুল্লাহ (পানির বোতল), ৬ নম্বর ওয়ার্ডে শাহিনুর রহমান রিটন (পাঞ্জাবি), ৭ নম্বর ওয়ার্ডে নুরুল আশরাফ রাজিব (উটপাখি), ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সৈয়দ মঞ্জুরুল কবীর রিপন (ডালিম) এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডে সোহেল রানা (পানির বোতল) প্রতীক নিয়ে পুননির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া ৪ নম্বর ওয়ার্ডে সাবেক কাউন্সিলর আব্দুর রহিম এবং ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মোস্তাক আহমেদ নতুন মুখ হিসেবে কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

মেহেরপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেছিলেন। এতে মীর জাহাঙ্গীর আলম (পানির বোতল) ১৮০১ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর পদে পুননির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী গোলাম ফারুক ৬৮৮ ভোট পান। ২ নম্বর ওয়ার্ডে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এতে সদ্য সাবেক হওয়া আল মামুন (টেবিল ল্যাম্প) ১১৯৭ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর পদে পুননির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী ইয়াসিন আলি শামিম (পানির বোতল) পেয়েছেন ৫৪৪ ভোট। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেন। এতে সৈয়দ আবু আব্দুল্লাহ (পানির বোতল) ৮৫৪ ভোট পেয়ে পুননির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম (উটপাখি) ৪৭০ ভোট পান। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেন। এতে সাবেক কমিশনার আব্দুর রহিম (পানির বোতল) ২০৮৩ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক প্যানেল মেয়র রিয়াজ তুল্লাহ (উটপাখি) পেয়েছেন ১২৭৮ ভোট। ৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এতে মোস্তাক আহমেদ (ব্রিজ) ৭১২ ভোট পেয়ে প্রথমবারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আক্তারুল ইসলাম (পাঞ্জাবি) ৫৮৪ ভোট পান। ৬নং ওয়ার্ডে ৪ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হন। এতে সাবেক প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান (পাঞ্জাবি) ৮০৫ ভোট পেয়ে পুননির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী সৈয়দ মঞ্জুরুল হাসান (পানির বোতল) ৭১১ ভোট পেয়েছেন। ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেন। সাবেক কাউন্সিলর নুরুল আশরাফ রাজিব (উটপাখি) ১৪৫৩ ভোট পেয়ে পুননির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী ইলিয়াস হোসেন (গাজর) পেয়েছেন ৭৩৭ ভোট। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ৮ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হন। এতে সাবেক কাউন্সিলর সৈয়দ মঞ্জুরুল কবীর (ডালিম) ৬১০ ভোট পেয়ে পুননির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী রিন্টু রহমান (উটপাখি) পান ৪৭৩ ভোট এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মোট ৩ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হন। এতে সাবেক কাউন্সিলর সোহেল রানা (পানির বোতল ১২৯৩ ভোট পেয়ে পুননির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী হামিদুল ইসলাম (টেবিল ল্যাম্প) পেয়েছেন ৭০৩ ভোট।

এদিকে মেহেরপুর পৌর সভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে (১,২,৩) দিল আফরোজ (চশমা) ৩২৫৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী সাবেক কাউন্সিলর আলপনা খাতুন ২৬২৮ ভোট পান। ২নং ওয়ার্ড (৪,৫,৬) শারমিনা পারভীন (বলপেন) ১৫৩৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী আফরোজা খাতুন (টেলিফোন) পেয়েছেন ১৪০৬ ভোট। ৩নং ওয়ার্ড (৭,৮,৯) রোকসানা কামাল রুনু (আনারস) ৪৭১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী সাবেক কাউন্সিলর হামিদা (চশমা) পান ১৮৯৮ ভোট।