মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : স্বামীর বসতঘর থেকে উচ্ছেদ করতে বিধবা নুরজাহান বেগমের বসতঘরে আগুন দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। এ সময় ঘরে থাকা আসাবপত্র পুড়ে প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন ভূক্তভোগী। এই ঘটনায় মিরসরাই থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ৩টার দিকে মিরসরাই উপজেলার মায়ানী ইউনিয়নের পশ্চিম মায়ানী এলাকার হাজী মুন্সী মিয়া মেস্ত্রি বাড়ির মৃত আলা উদ্দীনের বসত ঘরে এই ঘটনা ঘটে।

আলা উদ্দীনের স্ত্রী নুর জাহান বেগম বলেন, শুক্রবার রাতে আমি আমার স্বামীর ঘরে ঘুমাচ্ছিলাম। এমতাবস্থায় রাত ৩টার দিকে কে বা কাহারা আমার ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। তখন আমার সন্তানরাসহ আমি ঘুমে ছিলাম। আগুন লাগার বিষয়টি বাড়ির ও এলাকার লোকজন দেখতে পেয়ে তারা চিৎকার শুরু করলে উঠে দেখি একতলা বিল্ডিংয়ের ঘরের ছাদে, টিনশেড স্টোর রুম ও সিড়ির রুমে আগুনে পুড়ে যাচ্ছে। পরবর্তীতে আশপাশের লোকজন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। আগুনে স্টোর রুমের ফার্নিচার, ধান ও অন্যান্য আসবাবপত্র পুড়ে প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। আগুনের বিষয়টি আমি সাথে জরুরি সেবা ৯৯৯ ফোন করলে মিরসরাই থানার এসআই আনিস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, এর আগেও গত ২৫ ডিসেম্বর আমার ছেলে-মেয়েদের নিয়ে বেড়াতে গেলে একতলা বিল্ডিংয়ের ছাদে আগুন লাগিয়ে দেয়। এতে পানির পাইপ ও ত্রিপল ইত্যাতি পুড়ে যায়। ধারণা করা হচ্ছে আমার স্বামীর বড় ভাই মো. জয়নাল আবেদীন এবং তার ছেলে মো. আব্দুর রহমান আমাকে স্বামীর ভিটা হতে উচ্ছেদ এবং আমি ও আমার সন্তানদের প্রাণনাশের উদ্দেশ্যে ঘরে একাধিকবার আগুন দিয়েছে। যেহেতু তার সাথে পারিবারিক জায়গা সম্পত্তি নিয়ে পূর্ব থেকে আমার স্বামীর বিরোধ ছিলো এবং আমাকে বিভিন্ন সময় অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ প্রাণনাশের এবং ভিটা হতে উচ্ছেদের হুমকি প্রদর্শন করা হয়েছিলো। এ নিয়ে চেয়ারম্যান, মেম্বার এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বেশ কয়েকবার শালিসি বৈঠক হয়।

মায়ানী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. মোজাম্মেল হক বলেন, নুর জাহান বেগমের স্বামীর বড় ভাই জয়নাল আবেদীনের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ তাদের পারিবারিক জায়গা সম্পত্তির বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছিলো। বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার সালিশি বৈঠকও হয়েছিলো। বসতঘরে আগুন লাগার খবর শুনে সাথে সাথে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। যেহেতু রাতের আধারে আগুন লেগেছে, কিভাবে লেগেছে তা জানা যায়নি। পুলিশ প্রশাসন আছে তারা তদন্ত করে বের করবেন কারা আগুন দিয়েছে।

মিরসরাই থানার এসআই আনিসুর রহমান বলেন, মায়ানী এলাকায় এক বিধবা মহিলার বসতঘরের ছাদে আগুন লাগার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তসাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।