এম মাঈন উদ্দিন, মিরসরাই : আগামি ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় দাফের অনুষ্ঠিত মিরসরাই সদর (৯ নং) ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী শামছুল আলম দিদারকে সমর্থন দিয়ে সরে দাঁড়ালেন দুই বিদ্রোহী প্রার্থী।

শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলন করে সরে দাড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সম্প্রতি বহিষ্কৃত ঘোড়া প্রতিকের সাইফুল্লাহ দিদার ও মিরসরাই সদর (৯নং) ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনারস প্রতীকের প্রার্থী খায়রুল বাশার ফারুক।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, সহ-সভাপতি সিরাজউদ্দৌলা, সাধারণ সম্পাদক একেএম জাহাঙ্গীর ভূইয়া, দপ্তর সম্পাদক আলতাফ হোসেন, মিরসরাই সদর (৯নং) ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নৌকা প্রতিকের প্রার্থী শামছুল আলম দিদার, দুর্গাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরিদ আহাম্মেদ আরজু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য কংকন দে, জুয়েল চৌধুরী প্রমুখ।

বিদ্রোহী প্রার্থী ঘোড়া প্রতিকের সাইফুল্লাহ দিদার বলেন, আমার রাজনৈতিক অভিবাবক সাবেক মন্ত্রী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপির পরামর্শক্রমে এবং আগামীর কর্নধার মাহবুবর রহমান রুহেলের সম্মানার্থে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিপক্ষে থেকে তিনি নির্বাচন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এখন থেকে তিনি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শামসুল আলম দিদারের নৌকা প্রতীকের সমর্থনে ভোট চাইবেন। আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীককে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করার জন্য কাজ করে যাবো।

আনারস প্রতীকের খায়রুল বাশার ফারুক বলেন, আমরা সবাই আওয়ামী লীগের কর্মী। নৌকার পক্ষে আমাদের কোন দ্বিমত নাই। তাই আমি নৌকা প্রতিকের প্রার্থী শামছুল আলম দিদারকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ালাম।

নৌকা প্রতিকের প্রার্থী শামছুল আলম দিদার বলেন, আগামী ১১ নভেম্বর নৌকার জয়ের জন্য মিরসরাই সদর (৯ নং) ইউনিয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ ঐকব্যদ্ধ হয়ে কাজ করে যাবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, আগামী ১১নভেম্বর অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যে সকল ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন তাদের সাথে বসে নির্বাচনের আগে তা সমাধান করা হবে।

এ ছাড়া শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে সাইফুল্লাহ দিদারকে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কৃত দেওয়ার বিষয়ে আগামী ১ নভেম্বর বর্ধিত সভার পর এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, মেম্বার পদে একক প্রার্থীর বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।