মিরসরাই প্রতিনিধি : মিরসরাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে সত্য নায়ারণ পাল (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। শুক্রবার (২৪ জুন) দুপুর ২টায় উপজেলার খৈইয়াছড়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড বড়তাকিয়া ঝরনা রোড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে।

সে নোয়াখালী জেলার কবিরহাট থানার পশ্চিম দরদনগর এলাকার সদেব চন্দ্র পালের পুত্র। সত্য নারায়ণ মিরসরাইয়ে ব্রাক ওয়াশ প্রোগ্রামের এরিয়া সুপারভাইজারের দায়িত্বে ছিলেন।

খৈয়াছড়া ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) এস এম নুরুল আবছার বলেন, শুক্রবার দুপুর ২ টার দিকে আমার ওয়ার্ডের বড়তাকিয়া ঝরনা রোড় এলাকায় ব্রাকের এক কর্মকর্তা একটি মালবাহি ট্রেনের সামনে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে শুনেছি। সে পশ্চিম খৈয়াছড়া এলাকায় বিকাশ চন্দ্র দাসের বাড়িতে পরিবার নিয়ে ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।

নিহত সত্য নারায়ণ পালের স্ত্রী উর্মি সাহা বলেন, আমার স্বামীর ব্রাকে চাকরী করার সুবাধে স্বপরিবারে আমরা এখানে ভাড়া বাসায় থাকি। একমাস আগে থেকে আমার স্বামীর মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। এরপর শহরে গিয়ে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হয়ে চিকিৎসা চলছে। কিছুটা শারীরিক উন্নতিও হয়েছে। সকালে বাসা থেকে হাঁটতে বের হয়। দুপুরে খবর পাই তিনি মারা গেছেন। কিভাবে কি হয়ে গেল বুঝতেছি পারছি না। এভাবে চলে যাবে ভাবতেও পারছি না। আমাদের এক ছেলে, এক মেয়ে রয়েছে। এখন আমি তাদের নিয়ে কোথায় যাবো, কার কাছে যাবো বলে কেঁদে উঠেন।

এই বিষয়ে রেলওয়ে পুলিশ (জিআরপি) সীতাকুন্ড ফাঁড়ির ইনচার্জ খোরশেদ আলম জানান, আজ দুপুর ২টার সময় বড়তাকিয়া এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে এক ব্যক্তি মারা যাওয়ার খবর শুনে ঘটনাস্থলে আমাদের টিম উপস্থিত হয়। এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে যতটুকু জেনেছি, মালবাহি একটি ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে মারা গেছে সে। দেহ ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।