এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁর মান্দায় প্রেমিকের ওপর অভিমান করে নবম শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী তানিয়া আক্তার (১৫) বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। নিহত তানিয়া উপজেলার প্রসাদপুর ইউনিয়নের এলেঙ্গা গ্রামের আবদুল বারির মেয়ে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের নিজ কুলিহার খাঁপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত প্রেমিক আত্মগোপন করে পালিয়েছে।

তানিয়া নিজ কুলিহার গ্রামে নানা লুৎফর রহমানের বাড়িতে থেকে গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করত।
অভিযুক্ত যুবকের নাম ওয়াহেদ ইসলাম (১৬)। তিনি কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের কৈবর্ত্যপাড়া (কুনাইপাড়া) গ্রামের মোজাহার হোসেনের ছেলে। একই বিদ্যালয় থেকে চলতি এসএসসি পরীক্ষার্থী ওয়াহেদ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একাধিক বাসিন্দা জানান, একই বিদ্যালয়ে যাতায়াতের কারণে তানিয়া আক্তারের সঙ্গে ওয়াহেদ ইসলামের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সম্প্রতি তাদের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়ন চলছিল।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে প্রতিবেশি ষষ্ঠ শ্রেনীর শিক্ষার্থী রুমানা আক্তারের বাসায় যায় তানিয়া। সেখানে তিনি বিষপান করে। পরে তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়।

এদিকে স্কুলছাত্রী তানিয়া আক্তারের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে গা ঢাকা দেয় অভিযুক্ত প্রেমিক ওয়াহেদ ইসলাম। তবে এ বিষয়ে তানিয়া আক্তারের পরিবারের কেউ মুখ খোলেননি।

মান্দা থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান শাহিন বলেন, লাশের সুরুতহাল প্রতিবেদন তৈরির করা হয়েছে। তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
ওসি আরও বলেন, পরবর্তীতে এ বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।