এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, মান্দা (নওগাঁ) : নওগাঁর মান্দায় সরকারি রাস্তার গাছ কাটতে বাধা দেওয়ায় এক ব্যক্তিকে মারপিট করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। রোববার সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের পীরপালি বাজারে চেয়ারমানের উপস্থিতিতে মারপিটের এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগীর নাম আবদুস সাত্তার (৩৫)। তিনি নলঘৈর গ্রামের মৃত রজব আলীর মোল্লার ছেলে। তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, নলঘৈর পশ্চিমপাড়া গ্রামে পাকা রাস্তার ধারের একটি ইউক্যালিপটাস গাছ কেটে নেন আবুল কালাম আজাদের ছেলে সাকিবুল হাসান হিটলার। গাছটি কাটতে বাধা দেন একই গ্রামের আবদুস সাত্তার। এ নিয়ে রোববার সকালে পীরপালি বাজারে হিটলারের ভাই আরেফিন হোসাইনের সঙ্গে আবদুস সাত্তার বাকবিন্ডায় জড়িয়ে পড়েন।

সংবাদ পেয়ে হিটলার ঘটনাস্থলে এসে গাছের একটি ডাল দিয়ে আবদুস সাত্তারকে মারপিট করেন। এ সময় মান্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন তোফা সেখানে উপস্থিত ছিলেন বলে জানান তাঁরা।

ভুক্তভোগী আবদুস সাত্তার বলেন, সরকারি রাস্তার থেকে ব্যক্তি মালিকানার গাছ কাটতে বাধা দেওয়ায় হামলার শিকার হন তিনি।

গাছের দাবিদার তাইজুল ইসলাম বলেন, ‘রাস্তার ধারে আমাদের ব্যক্তি মালিকানার জমিতে গাছটি লাগানো হয়েছিল। রোববার সকালে গায়ের জোরে গাছটি কেটে নেন হিটলার। বিষয়টি চেয়ারম্যান তোফাকে জানানো হলে তিনি থানায় যাওয়া পরামর্শ দিয়েছিলেন। আমরা গরীব মানুষ তাই থানা পুলিশ করতে সাহস পায়নি।’

অভিযুক্ত হিটলারের ভাই আরেফিন ফেরদৌস জানান, ২০০২ সালের দিকে স্থানীয় ক্লাবের উদ্যোগে ওই রাস্তায় অনেক গাছ লাগানো হয়েছিল। এরইমধ্যে গাছগুলো কেটে নেওয়া হয়েছে। ছোটভাই হিটলারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, গাছটি কাটার আগে জমি মালিকের সঙ্গে সমন্বর করা উচিত ছিল। এভাবে গাছটি কেটে নেওয়া ঠিক হয়নি।

চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন তোফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রাস্তার গাছ এভাবে কেটে নেয়া বেআইনি হয়েছে। এ বিষয়কে কেন্দ্র করে মারপিটের ঘটনাটি দুঃখজনক।

এ ঘটনাটি জানালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।