এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁর মান্দায় সাদিয়া আক্তার (৭) নামের প্রথম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় ভালাইন ইউনিয়নের নিম বাড়িয়া গ্রামে এ পাশবিক হত্যাকান্ডপূর্বক ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।

নিহত সাদিয়া স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ও সায়ের উদ্দিনের মেয়ে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

স্থানীয় ও থানা সূত্রে জানা যায়, শনিবার বিকেলে তাদের গ্রামের মোহাম্মদের ছেলে আবদুলের বাড়ির খলিয়ানে একটি ইফতার ও দোয়ার অনুষ্ঠান চলছিল।

এ অনুষ্ঠানে নিহত ছাত্রীর বাবা-মা বিভিন্ন কাজ-কর্মে ব্যস্ত সময় পার করছিলেন। তাদের কাছে থেকে তাদের মেয়ে একটু দূরে অন্যান্য শিশুদের সাথে খেলা-ধুলা করছিল। হঠাৎ করে বিকেল ৩ টার দিক থেকে নিহতের বাবা-মা তাদের সন্তানকে দেখতে না পেয়ে সম্ভব্য সবখানে খোঁজ করতে থাকেন।

খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে সন্ধ্যা ৬ টার দিকে অনুষ্ঠান বাড়ির পার্শে বাঁশঝাড়ের এক স্থানে আবর্জনা দিয়ে ঢাকা কিছু দেখে তাৎক্ষণিক ভাবে সেই আবর্জনা সরিয়ে শিশুটির বিবস্ত্র লাশ দেখতে পান স্থায়ীয়রা।তাৎক্ষণিক তারা ঘটনাটি থানা পুলিশকে অবহিত করলে থানা পুলিশ রাত ১০টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ উদ্ধার করেন।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান শাহিন বলেন সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সংবাদ পাওয়ার পর আমার সঙ্গীয় ফোর্সসহ আমি নিজেই ঘটনাস্থলে এসেছি। এখানে এসে দেখি নিহত শিশুর পড়নের প্যান্ট তার মুখের ভেতরে দেওয়া আছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা যাচ্ছে কেউ তাকে ধর্ষণ করে হত্যা করেছে। লাশের প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে। এবং পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।