আব্দুর রাজ্জাক, ঘিওর (মানিকগঞ্জ) : মানিকগঞ্জের ৫০ জন সুবিধাবঞ্চিত শিশুর পাশে দাঁড়িয়েছেন মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাছলিমা শিরিন মুক্তা।

শনিবার বিকেলে জেলাশহরের বেউথা বস্তির পাশে অবস্থিত দিশারী স্কুলের সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীদের প্রত্যেকের হাতে তিনি তুলে দেন তিনটি খাতা, একটি করে পেন্সিল, ইরেজার, পেন্সিল ও আপেল।

বিকেল ৩টায়, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘দিশারী’, পরিচালিত ওই স্কুলে যান তাছলিমা শিরিন মুক্তা। সাথে ছিলো তাঁর শিশুকণ্যা আয়িশা জান্নাত লামিয়া। স্কুলের ভলান্টিয়ার শিক্ষক, দিশারী’র কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সাথে কিছুটা সময় কাটান।

শিশু-কিশোরদের দ্বারা পরিচালিত এই স্কুলের পাশে থাকার কথা জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন দিশারী’র উপদেষ্টা ও মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাস, সভাপতি হাসান শিকদার, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসানাত, যুগ্ম-সম্পাদক স্বপন মিয়া, সহকারী সম্পাদক শাম-মীম-জোপা বৃষ্টিসহ সংগঠনটির সদস্যবৃন্দ।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা নিশ্চিত করার প্রয়াসে কিছুসংখ্যক শিশু-কিশোর জেলা শহরের বেউথা বস্তির একটি গাছতলায় পাঠদান শুরু করে। তাদের এই উদ্যোগটা অল্পসময়ের মধ্যেই প্রশংসিত হয়। এরপর, জেলা প্রশাসনের সহায়তায় বস্তির পাশে গড়ে ওঠে ইটের দেওয়ালের ওপর টিনের স্কুল ঘর। বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজের শিক্ষার্থীরা পর্যায়ক্রমে পাঠদান করে।