চট্টগ্রাম ব্যুরো : মাদকের জন্য টাকা না দেওয়ায় পিতা মোহাম্মদ জাফরুল আলম চৌধুরী (চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিষ্টার)কে মারধর করেছে ছেলে শাহরিয়ার চৌধরী (২৭)। এ ঘটনায় পিতার করা মামলায় ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

১ অক্টোবর, শুক্রবার দিবাগত রাতে কাপাসগোলা আকবরশাহ লেইন শামিম প্রাঙ্গন প্রকাশ ডাক্তার হোসেনের মেয়ের বাড়ির বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মামলার এজাহারে থেকে জানা গেছে, ছেলে শাহরিয়ার চৌধুরীকে মাদক কেনার জন্য টাকা না দেয়ায় গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় তার পিতাকে বাথরুমে অজু করা সময় মারধর করে এবং হত্যার উদ্দেশ্যে চেয়ার দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এতে গুরুতর আহত হন তিনি।

আহত পিতার চিৎকার শুনে বাঁচাতে তার মা এগিয়ে এলে তাকেও প্রাণ নাশের হুমকি দেয় শাহরিয়ার। এ সময় অপর ছেলে-মেয়ে এসে জাফরুল আলম চৌধুরীকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে আহত জাফরুল আলম চৌধরী তার ছোট ছেলে শাহনেওয়াজ এর মাধ্যমে পাঁচলাইশ থানায় শাহরিয়ার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে।

এ বিষয়ে পাঁচলাইশ থানার ওসি (তদন্ত) মো. কামাল উদ্দিন বলেন,‘প্রায় মাদক কেনার জন্য বাবার কাছ থেকে টাকা চাইতেন ছেলে শাহরিয়ার। গতকাল মাদকের জন্য টাকা চাইলে টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে জুমার নামাজে জন্য বাথরুমে অজু করতে গেলে চেয়ার নিয়ে পিতা জাফরুল আলম চৌধুরী উপর হামলা করে। এসময় তিনি গুরুত্বর আহত হন। বর্তমানে তিনি চমেকে ভর্তি আছেন।

তিনি আরও জানান, আহত জাফরুল আলম চৌধুরী তার অপর ছেলেকে দিয়ে থানায় এজহার পাঠালে রাতে অভিযুক্ত ছেলে শাহরিয়ারকে গ্রেফতার করা হয়। আজ সকালে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।