খোলাবার্তা২৪ ডেস্ক : খুব খিদে পেলে বা অনেক সময় না খেয়ে থাকলে পেটে ব্যথা করতে পারে। আবার বদহজমের কারণেও অনেক সময় পেটের মধ্যে একটা অস্বস্তি অনুভূত হয়। তবে অনেকেই এই পেট ব্যথার সমস্যাকে প্রাথমিক অবস্থায় বিশেষ গুরুত্ব দেন না।

হজমের গন্ডগোল ছাড়াও পেট ব্যথার অন্য অনেক কারণ থাকতে পারে। বেশ কয়েক দিন ধরে যদি পেটে ব্যথা থেকে যায়, সে ক্ষেত্রে অতি অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি। অনেক সময় পেটে ব্যথার আসল কারণ বোঝা যায় না। তবে উপসর্গ জানা থাকলে কী কারণে ব্যথা হচ্ছে তা অনুমান করা যাবে।

অম্বল : তেল, মশলা, চর্বি জাতীয় খাবার খাওয়ার পরেই সাধারণত অম্বলের সমস্যা দেখা দেয়। পেট এবং বুকের মধ্যিখানে জ্বালা ভাব অম্বলের উপসর্গ। মাঝেমাঝেই এমন সমস্যা হলে চেপে না রেখে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

আলসার : পেটের উপরের ও মাঝের দিকে জ্বালা করে, কামড়ে ধরে, কিংবা মাঝে মাঝে ঢেকুর ওঠা, বুক জ্বালার মতো কিছু উপসর্গ দেখা দিলে আলসার নিয়ে সাবধান হন। এই লক্ষণগুলি পেটের আলসারের অন্যতম লক্ষণ। এগুলি দেখা দিলে ফেলে না রেখে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলুন।

গলব্লাডার : পিত্তাশয়ে পাথর হলে মাংস বা তেল মশলা জাতীয় খাবার খেলে পেটে ব্যথা বারে। সঙ্গে বমিও। এই রোগের মূল লক্ষণ পেটের ডান দিক থেকে ব্যথা শুরু হয়ে ডান কাঁধ পর্যন্ত পৌঁছয়। পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের মধ্যে পিত্তাশয়ে পাথর হওয়ার আশঙ্কা বেশি। তাই এমন হলে অতি দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।

ডাইভার্টিকুলাইটিস : পেটের নীচের বাঁ দিকে হঠাৎ করে ব্যথা শুরু হলে হতে পারে তা ডাইভার্টিকুলাইটিসের কারণে হচ্ছে। মূলত কম ফাইবারযুক্ত খাবার খাওয়ার ফলে এই ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। পেটে ব্যথা ছাড়াও জ্বর, বমি বমি ভাব, কোষ্ঠকাঠিন্য বা ডায়রিয়ার মতো শারীরিক সমস্যাও দেখা দেয়। এই ধরনের শারীরিক সমস্যায় আক্রান্ত হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি। নয়তো বাড়তে পারে বিপদ।