এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁর মহাদেবপুরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের মারপিটে নারীসহ গুরুতর আহত হয়েছে ৭ জন। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার বিকেল ৫টায় উপজেলার হাসানপুর গ্রামে।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন, হাসানপুর গ্রামের মৃত কফিল উদ্দিনের ছেলে মমতাজ (৬৫), তার স্ত্রী ফিরোজা বেগম (৫৮), ছেলে ফিরোজ হাসান (৩৫), ফিরোজের স্ত্রী সাথী আক্তার (৩০), বারবাকপুর গ্রামের আসগর আলীর ছেলে মোহাম্মদ আলী (৩৫), বকাপুর গ্রামের ইছা মন্ডলের ছেলে আবদুস সালাম (৫৫) ও মহিলা কলেজ পাড়ার কলিম উদ্দিনের ছেলে সাইফুল (২৪)।

আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে অবস্থার অবনতি হওয়ায় ওইদিন রাতেই সাথী আক্তার ও আবদুস সালামকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ফিরোজের অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরদিন মঙ্গলবার দুপুরে তাকেও রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। অন্যরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ভুক্তভোগী মোহাম্মদ আলী জানান, বিকেলে তারা তাদের জমির ধান দেখতে গেলে হাসানপুর গ্রামের মৃত হাতেম আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান, হারুন অর রশিদ, নাসির উদ্দিন, খয়বর আলীর ছেলে নয়ন, মোজামের ছেলে পিন্টু, নাসিরের ছেলে রশিদুল, হাবিবুর রহমানের ছেলে ফয়সাল, মৃত আজিম উদ্দিনের ছেলে আবু বক্করসহ বেশ কিছু লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালিয়ে বেধড়ক মারপিট করেন।

উল্লেখ্য যে, গত ১৬ নভেম্বর ৫বিঘা জমির আতব ধানে কীটনাশক ছিটিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় মোহাম্মদ আলী বাদি হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে প্রতিপক্ষরা ক্ষিপ্ত হয়ে মারপিটের এ ঘটনাটি ঘটায়।

মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম উদ্দীন মাহমুদ জানান, এ ঘটনা তিনি শুনেছেন, এখন পর্যন্ত কেউ কোন লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।