মো: মনির আকন, মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা আইনজীবী সহকারী সমিতির নির্বাচন-২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে নতুন সভাপতি পদে মোঃ শাহ আলম জামাল ও সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আউয়াল মিয়া নির্বাচিত হন।

শনিবার (৭ জানুয়ারি) সকালে মঠবাড়িয়া আইনজীবী সমিতি ভবনের নীচ তলায় এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় শুরু হয়ে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। ভোট গ্রহন শেষে নির্বাচন কমিশন অ্যাডভোকেট আতাউর রহমান ফলাফল ঘোষণা করেন।

বিজয়ী সভাপতি শাহ আলম জামাল তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. হাবিবুর রহমানের চেয়ে ৮ ভোট বেশি পেয়ে সভাপতি নির্বাচিত হন। শাহ আলম জামাল মোট ভোট পান ২০টি। তার নিকটতম প্রার্থী মো. হাবিবুর রহমান পান ১২ ভোট। সহ-সভাপতি মো. খলিলুর রহমান বিজয়ী হন ২৪ ভোট পেয়ে। তার নিকটতম প্রার্থী ইউনুস খান পান মাত্র ৫ ভোট। সবচেয়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয় সাধারণ সম্পাদক পদে। সাধারণ সম্পাদক মো. আউয়াল মিয়া তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. নিজাম উদ্দিন ফরাজীর থেকে মাত্র ১ ভোট বেশি পেয়ে জয়ী হন। মো. আউয়াল মিয়া পান ১৬ ভোট আপরদিকে পরাজিত প্রার্থী মো. নিজাম উদ্দিন ফরাজী পেয়েছেন ১৫ ভোট।

এই নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ৩৩ জন। ৩টি পদের বিপরীতে মোট ৬ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। দুইটি প্যানেলে ৩ জন করে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। সদস্য একজন প্রার্থী বিনা প্রতদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

জয়ী প্রার্থীরা বলেন, সুন্দর ও উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যদিয়ে একটি সুষ্ঠ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভোটারা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগকরে আমাদের আগামী এক বছরে জন্য দায়িত্ব দিয়েছে। আমরা সবাইকে নিয়ে এই সমিতির উন্নয়নে কাজ করব। সব সদস্যের বিপদে-আপদে, সুখে-দুঃখে পাশে থাকব ইনশাআল্লাহ।

পরাজিত প্রার্থী মো. নিজাম উদ্দিন ফরাজী জানান, ভোট গণনা সঠিক হয়নি। নির্বাচনের নিয়ম অনুযায়ী ত্রুটিপূর্ণ ভোট পেপার কোন প্রার্থীদের জন্যই গণনায় আসবে না। কিন্তু অন্যান্য পদের প্রার্থীদের ভোট গননায় ত্রুটিপূর্ণ পেপার বিবেচনায় এনে উদ্দেশ্যেমূলক ভাবে শুধুমাত্র সাধারণ সম্পাদকের পদে আমার পক্ষের একটি ভোট বাতিল করা হয়। ওই একটি ভোটই সাধারণ সম্পাদক পদের ব্যবধান গড়ে দেয়। আমি এ ফলাফলের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করব।