খাল থেকে উদ্ধার করা গরুর মাথা

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় সংঘবদ্ধ একটি দুর্বৃত্ত দল এক প্রান্তিক কৃষকের গোয়াল ঘরে রাখা গরু রাতের আঁধারে চুরি করার পর জবাই করে মাংস লুটে নিয়েছে। এ সময় দুর্বৃত্তরা গরুর মাথাটি স্থানীয় হলতা খালে ফেলে রেখে যায়।

বুধবার গভীর রাতে উপজেলার বুখইতলা বান্ধবপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলে এর সত্যতা মিলে।

জানা গেছে, বুখইতলা বান্ধবপাড়া গ্রামের কৃষক মজনু রহমান তালুকদার প্রতিদিনের মত মাঠ থেকে ঘাস খাওয়ানোর পর গরুটিকে সন্ধ্যায় গোয়াল ঘরে এনে রেখে দেয়। বৃহস্পতিবার সকালে গোয়াল ঘরে গরু না দেখতে পেয়ে খোঁজাখুজি করলে বাড়ির পার্শ্ববর্তী হলতা নদীর পাড়ে কাদামাটির ভিতরে গরুর মাথা দেখতে পায়।

ধারণা করা হয় বুধবার গভীর রাতের কোন এক সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা গরুটিকে চুরি করে খালের পাড়ে এনে জবাই করে মাংস নেওয়ার পর মাথাটি ফেলে রেখে যায়।

কৃষক মজনু রহমান তালুকদার কান্না জড়িত কন্ঠে বলেল, আমার শেষ সম্বল ছিল এই গরুটি। অনেক কস্ট করে কিছু টাকা জমিয়ে বাছুর অবস্থায় কিনেছিলাম। এই দুইবছর ধরে পাইল্লা (লালন-পালন) করে বাছুটিকে বড় করেছি। আমার গোয়াল ঘরটা শূন্য করে দিল। মানুষ এরকম পাষাণ হয় কি করে!। এটি বিক্রি করে সংসারের খরচ চালাবো ভেবেছিলাম। কিন্তু ওরা আমার গরুটা জবাই দিয়ে খেয়ে ফেলল। কে দেবে আমার গরু, কার কাছে বিচার চাইবো।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি মো. কামরুজ্জামন তালুকদার জানান, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সত্যতা নিশ্চিত করেছে। ওই কৃষকের পক্ষ থেকে এখন কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।