মিজানুর রহমান মিজান, রংপুর অফিস : রংপুর জেলা পুলিশ সুপার বরাবর পুলিশ বাহিনীতে ট্রেইনিং রিক্রুট কনস্টেবল (পুরুষ) পদে নিয়োগ সংক্রান্ত ৪টি ভূয়া ডিওলেটার জমা পড়ে। ডিওলেটারগুলো দেয়া হয় রংপুর পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার এসপি বরাবর।

রংপুর এসপি অফিসে ডিওলেটারগুলো যাচাই-বাচাইয়ান্তে তৎক্ষণাৎ পুলিশের চোখ কপালে উঠে যায়। দেখা যায়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর স্বক্ষরটি জাল, ডিওলেটারটি ভূয়া। দ্রুত এসপি বিপ্লব কুমার সরকারের নির্দেশক্রমে ঐ চার ভূয়া ডিওলেটারধারী ব্যাক্তি ও ডেমি অফিসিয়াল লেটার’ (ডিও লেটার) প্রদানের ঘটনায় জড়িত এক পুলিশ সদস্যসহ ৪ জনকে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে জালিয়াতির কথা স্বীকার করে তারা। এ ঘটনায় পুলিশ সুপারের নির্দেশে বৃহষ্পতিবার রাত সাড়ে বারোটার দিকে ৪ প্রত্যারকের বিরুদ্ধে কোতয়ালী থানায় একটি মামলা করা হয় এবং রাতেই ৪ জনকে থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ খবর নিশ্চিত করেছেন রংপুর জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার।

গ্রেফতাররা হলেন- রংপুর সদর উপজেলার উত্তর মহেষপুর গ্রামের জিয়াউর রহমানের ছেলে জুয়েল রানা (২৮), একই এলাকার নয়া মিয়ার ছেলে আল আমিন (১৯), মিঠাপুকুর উপজেলার রূপসী গাছুপাড়া গ্রামের মৃত সাইদুল হকের ছেলে মোসাদ্দেক হোসেন (২০) এবং গাইবান্ধার সাদুল্লাহপুর থানার ফুলবাড়ি গ্রামের মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে ও রংপুর মহানগর পুলিশ লাইনের এমটি (যানবাহন) শাখায় কর্মরত কনস্টেবল মাসুদার রহমান মাসুদ।