এম এ করিম, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের আসন্ন উপনির্বাচন থেকে স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক দুই বারের এমপি এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা। বুধবার (১৮ জানুয়ারী) লিখিত এক বিবৃতির মাধ্যমে তিনি এ ঘোষণা দেন।

নির্বাচনে ১৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিলেও ৮ জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বৈধ ঘোষনা করা হয়। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগ দলীয় ৩জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেন। সর্বশেষ প্রতিদ্বন্দ্বী ৫ জন প্রার্থীর নামে প্রতীক বরাদ্ধ হয়। এর পর দুই জন স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রতীক পরিবর্তন করে নতুন প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়।

বুধবার (১৮ জানুয়ারী) আপেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক দুই বারের এমপি এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা স্বেচ্ছায় নির্বাচন থেকে সরে দাড়াঁনোর ঘোষণার পর ৪ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নির্বাচনে সর্বশেষ প্রতিদ্বন্দ্বী ৪ জন প্রার্থীগণ হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক ৫ বারের এমপি উকিল আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া (প্রতীক কলার ছড়ি), জাতীয় পার্টি মনোননীত প্রার্থী এডভোকেট আবদুল হামিদ ভাসানী (প্রতীক লাঙ্গল), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো.আবু আসিফ আহমেদ ( প্রতীক মোটরগাড়ি), জাকের পার্টি মনোনীত প্রার্থী জহিরুল ইসলাম জুয়েল ( প্রতীক গোলাপ ফুল)।

এ ব্যপারে এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা বলেন, স্বল্প সময়ে জনগণের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব নয় বলে স্বেচ্ছায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িছি।

ঘোষিত তফছিল অনুযায়ী আগামী ১ ফেব্রুয়ারী ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২(সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।