ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের উপ-নির্বাচনে ১৩ প্রার্থীর মধ্যে পাঁচজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

রোববার (৮ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

মনোনয়ন বাতিল হওয়া প্রার্থীরা হলেন- ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক, স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফ উদ্দিন মন্তু, শাহ মফিজ, মোহন মিয়া ও আব্দুর রহিম।

হলফনামায় স্বাক্ষর না করা, ১ শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর যথাযথ না হওয়া ও ব্যাংক স্টেটমেন্ট দাখিল না করাসহ বিভিন্ন ত্রুটির কারণে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা।

মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা আট প্রার্থী হলেন- সদ্য পদত্যাগ করা উক্ত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত নেতা উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া (স্বতন্ত্র), উক্ত আসনের জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা (স্বতন্ত্র), আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আবু আসিফ আহমেদ (স্বতন্ত্র), ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু (স্বতন্ত্র) ও মঈন উদ্দিন মঈন (স্বতন্ত্র), জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী আব্দুল হামিদ ভাসানী, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের মহাসচিব অধ্যক্ষ শাহজাহান আলম সাজু (স্বতন্ত্র), ও জাকের পার্টি মনোনীত প্রার্থী জহিরুল ইসলাম জুয়েল।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক ও নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. শাহগীর আলম জানান, মোট ১৩টি মনোনয়ন জমা পড়েছিল। এরমধ্যে যাচাই-বাছাই শেষে পাঁচ প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিলে ত্রুটি ছিল। বাকি আটজনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। যারা যাচাই-বাছাইয়ে বাতিল হয়েছেন তারা আগামী তিনদিনের মধ্যে নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন।

উল্লেখ্য যে, গত ১১ ডিসেম্বর দলীয় সিদ্ধান্তে বিএনপি সাংসদ উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগ করায় এ আসনটি শ‚ন্য ঘোষণা করা হয়। পওে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি উপ-নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এ আসনে মনোনীত কোনো প্রার্থী দেয়নি আওয়ামী লীগ। তবে জাতীয় পার্টি থেকে আব্দুল হামিদ ভাসানীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।