ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ‘এসো ফিরে স্মৃতির সন্ধানে মিলিত হওয়ার প্রাণের বন্ধনে’ স্লোগানে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় উদযাপিত হয়ে গেল নবীনগর রসুল্লাবাদ ইউ এ খান উচ্চ বিদ্যালয় পূর্ণমিলনি। গত রোববার বিকেলে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে পুনর্মিলনী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল।

পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির আহবায়ক আমেরিকান প্রবাসী আবদুল মোতালিবের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব সাংবাদিক হাসান জাবেদের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডীন প্রফেসর ড. খন্দকার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান, নিউরো সায়েন্স হাসপাতালের বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা. মনির হোসেন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মনির হোসেন। এ ছাড়াও ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় কর্মরত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা বক্তব্য রাখেন।

এ সময় বিদ্যালয়ের স্মৃতি চারণ করে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্ররা বক্তব্য দেন। উৎসব ঘিরে বিদ্যালয়ে বসেছিল নবীন-প্রবীণের মিলনমেলা। তারা যেন ফিরে যান সেই উচ্ছল তারুণ্যভরা দিনগুলোতে। পুন:মিলনী উপলক্ষে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে একটি বিশেষ স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, উন্নত দেশ তো একজন প্রধানমন্ত্রী যাদু মন্ত্র দিয়ে করতে পারে না। যুব সমাজ ছাড়া কে দেশ উন্নত করবে। তাই উন্নত বাংলাদেশ হবার একমাত্র উপাদান হচ্ছে শিক্ষিত যুব সমাজ।এর আগে একটি র‌্য্যলি বের হয় এতে বিদ্যালয়ের বিপুল সংখ্যাক শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধে ও শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ছয়জন গুনীজনকে সংবর্ধণা দেয়া হয়।