আব্দুর রাজ্জাক, ঘিওর (মানিকগঞ্জ) : ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ এর নিম্নচাপের প্রভাবে গতকাল রোববার থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি আজ সোমবারও অব্যাহত রয়েছে। টানা বৃষ্টি আর হীম শীতল বাতাসের কারনে জরুরি কাজ ছাড়া বাইরে তেমন একটি মানুষজন বের হচ্ছে না। সঙ্গত কারণেই দুদিন যাবত বেকার বসে আছেন রিকশা ও অটো চালকরা।

সরজমিন সোমবার বেলা ১১ টায় মানিকগঞ্জের ঘিওর বাসস্ট্যান্ডে দেখা গেল ৫/৬ টি রিকশা ও অটো অপেক্ষা করছে। মাথায় পলিথিন পেঁচিয়ে বসে আছেন চালকরা। যাত্রীর দেখা মিলছে খুব কম। ফলে দিন আনা দিন খাওয়া এসব মানুষজন পরেছেন বেকায়দায়। অনেকেরই কিস্তির ঝামেলা অনেকটা মরার ওপর খড়ার ঘা।

উপজেলার বানিয়াজুরী বাসষ্ট্যান্ডে কথা হয় রিকশা চালক আমির হোসেন, আলামিন ও সোরহাব হোসেনের সাথে।

তারা জানান, বৃষ্টি আর ঠান্ডা বাতাস উপেক্ষা করে সকাল বেলা বের হয়েছি পেটের তাগিদে। কিন্তু এখন পর্যন্ত একজন যাত্রীও পাইনি। সিংজুরী থেকে অটো গাড়ি চালানোর জন্য ঘিওরে আসছেন সাজ্জাদ মিয়া।

তিনি জানান, গার্মেন্টসের চাকরি ছেড়ে দিয়ে এনজিও থেকে কিস্তিতে অটো রিক্সা কিনেছি। কিন্তু দুই দিন বৃষ্টির কারনে অটো নিয়ে বের হলেও যাত্রীর অভাবে বসে আছি। হঠাৎ বৃষ্টি হওয়ার কারনে খুব কষ্টে আছি। সাপ্তাহিক কিস্তির টাকা এখনও জোগাড় করতে পারিনি।

তেরশ্রী থেকে রিক্সা নিয়ে আসা মোঃ আবু তাহের জানান, শনিবার বিকেল থেকে শুরু হয়েছে গুড়িগুড়ি বৃষ্টি। রোববার থেকে আজ পর্যন্ত একটানা বৃষ্টি উপেক্ষা করে রিক্সা নিয়ে বের হয়েছি। বেলা দুপুর গড়িয়ে গেল। একজন যাত্রীর কাছ থেকে মাত্র ২০ টাকা ভাড়া পেয়েছি। দুই ছেলে মেয়ে ও আমরা দুইজন মোট চার জনের সংসার। বাজার সদাই করবো কিভাবে, চিন্তায় আছি।