কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় ঝালকাঠি জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলামকে আবার কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার সকালে তাঁর জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে ঝালকাঠি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শেখ আনিসুজ্জামান এ আদেশ দেন।

ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে এর আগে ২২ আগস্ট সকালে বিএনপি নেতা রফিকুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরের দিন তাঁকে আদালত জেলহাজতে পাঠান। সম্প্রতি তিনি উচ্চ আদালত থেকে জামিনে মুক্ত হন। এরপর চেম্বার জজ আদালত তাঁর জামিন বাতিল করেন। আজ আবার নিম্ন আদালতে হাজির হয়ে তিনি জামিন চাইলে বিচারক তা না মঞ্জুর করেন।

ঝালকাঠি কোর্ট পরিদর্শক আবদুস সাত্তার বলেন, রফিকুল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক আইডি থেকে গত ৪ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ দেশের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদদের জড়িয়ে একটি পোস্ট দেন। এ ঘটনায় রাজাপুর শহর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. সাব্বির খান বাদী হয়ে ৭ জুলাই রাতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেন।

জেলা বিএনপির সদস্যসচিব শাহাদাৎ হোসেন বলেন, রফিকুল নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী ছিলেন। সম্প্রতি তিনি ফেসবুকে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। পরে তাঁর বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়। এ হয়রানিমূলক মামলা থেকে তিনি অবিলম্বে রফিকুলের মুক্তির দাবি জানান।